গোসাবার বিধায়ক জয়ন্ত নস্কর চুনাখালি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার বুলবুল বিধ্বস্ত ৭০০ অসহায় পরিবারের হাতে ত্রাণ হিসাবে তুলে দিলেন।

0
1308

সুভাষ চন্দ্র দাশ,ক্যানিং —২০০৯ সালে আয়লা ঝড়ে বিধ্বস্ত হয়ে গিয়েছিল প্রত্যন্ত সুন্দরবনের বাসন্তী ব্লকের চুনাখালি গ্রাম পঞ্চায়েতর অধিকাংশ বাসিন্দারা। সেই ধাক্কা সামাল দিয়ে কিছুটা সচ্ছল হয়েছিল এই এলাকার দরিদ্র মানুষজন। এরপর একের পর এক প্রাকৃতিক দুর্যোগ ফণি ও বুলবুলের ধাক্কায় জেরবার হয়ে অসহায় হয়ে পড়েছিল পিছিয়েপড়া বাসন্তী ব্লকের চুনাখালি গ্রাম পঞ্চায়েতের অধিকাংশ দরিদ্র পরিবার গুলি। বুলবুলে বিধ্বস্ত হয়ে চাষের ধান,বাগানের সবজি এমন কি পুকুরের মাছ নষ্ট হওয়ার পাশাপাশি বাড়ীঘর ভেঙে গিয়ে আবারও অসহায় হয়ে পড়ে এই এলাকার দরিদ্র মানুষজনেরা। বুলবুলের পর রাজ্য সরকারের সৌজন্যে গোসাবার বিধায়ক জয়ন্ত নস্কর বুলবুল বিধ্বস্ত পরিবারের পাশে দাঁড়িয়ে খাদ্যসামগ্রী সহ ত্রিপল তুলে দিয়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছিলেন।
শনিবার দুপুরে আবার রাজ্য সরকারে সৌজন্যে গোসাবার বিধায়ক জয়ন্ত নস্কর চুনাখালি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার বুলবুল বিধ্বস্ত ৭০০ অসহায় পরিবারের হাতে ত্রাণ হিসাবে তুলে দিলেন হাঁড়ী,কড়া,ষ্টোভ,শীতের পোশাক সহ রাজ্য সরকারের স্পেশাল কিটস ব্যাগ তুলেদেন।
জয়ন্ত নস্কর বলেন “প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্থ সাধারণ মানুষের পাশে বিগত দিনে যেমন মমতার সরকার ছিল। আগামী দিনেও তাদের পাশে থাকবে। ”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here