ক্ষতিপূরণের টাকা না পেয়ে অভিযুক্ত স্বামীকে গ্রামে আটকে রেখে বিক্ষোভ গ্রামবাসী সহ পরিবারের লোকেদের।

0
167

উঃ দিনাজপুর, রাধারানী হালদারঃ- ১১ জুন, ইটাহারঃ ক্ষতিপূরণের টাকা না পেয়ে অভিযুক্ত স্বামীকে গ্রামে আটকে রেখে বিক্ষোভ গ্রামবাসী সহ পরিবারের লোকেদের। বৃহস্পতিবার ঘটনাটি ঘটেছে ইটাহার থানার বাগবাড়ি এলাকার নির্ভয়পুর গ্রামে। উল্লেখ্য ২০১৪ সালের ১৮ নভেম্বর নির্ভয়পুর গ্রামের বাসিন্দা সত্যেন্দ্র পালের মেয়ে মধুমিতা পালের সঙ্গে সামাজিক ভাবে বিয়ে হয় ইটাহার চৌরাস্তা এলাকার ব্যবসায়ী বিশ্বজিৎ ঘোষের সঙ্গে। কিন্তু প্রথমদিকে বিবাহিত সম্পর্ক ভালো থাকলেও পরে সংসারে অশান্তি লেগে থাকত এবং বিশ্বজিৎ পাল মধুমিতা পাল কে মারধোর সহ নানান ভাবে অত্যাচার করত বলে অভিযোগ স্ত্রী মধুমিতা পাল সহ তার পরিবারের লোকজনদের। এই অত্যাচার কয়েক মাস আগে চরম পর্যায়ে যায়। খবর যায় ইটাহার থানায়। এরপর থানায় দুই পক্ষকে নিয়ে বিচার হলে বিবাহ বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত হয় এবং অভিযুক্ত বিশ্বজিৎ ঘোষ এককালীন কয়েক লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেয়। সেই মত মেয়েকে বাড়ি নিয়ে চলে যাই বাবা সত্যেন্দ্র পাল। কিন্তু সাত মাস পেরিয়ে গেলেও ক্ষতিপূরণের টাকা না পেয়ে বৃহস্পতিবার নির্ভয়পুর গ্রামের বাসিন্দা সহ মধুমিতা পাল এর পরিবারের সদস্যরা অভিযুক্ত স্বামী বিশ্বজিৎ ঘোষ কে গ্রামে এনে আটকে রাখে এবং টাকার দাবিতে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে। পুলিশ খবর পেয়ে গ্রামে গেলে বাধার মুখে পড়তে হয় পুলিশকে। গ্রাম বসী সহ পরিবারের সদস্য দের দাবি ক্ষতিপূরণের টাকা না পাওয়া পর্যুন্ত বিশ্বজিৎকে গ্রামে আটকে রাখা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here