সুরেরটানে গানের ভাষায় জুটি বাঁধলেন দুই বাংলা জনপ্রিয় দুই কন্ঠশিল্পী শুভমিতা ব্যানার্জি ও রঞ্জন চৌধুরী…।

0
1616

সৌগত রাণা কবিয়াল, কবি সাহিত্যিক ও কলামিস্টঃ- বাঙালীর জীবনধারায় সঙ্গীত বরাবরই এক অসাধারণ যাদু সুখের সুর-শান্তি..! সময়ের সাথে সাথে হয়তো প্রজন্মের প্রয়োজন অনুযায়ী তার আয়োজন বদলায়, কিন্তু একান্ত ব্যক্তিগত সুখের যায়গায় গানের একটা বড় অংশ মানুষের মনস্তাত্ত্বিক চিন্তাধারাকে আপ্লুত করে এসেছে সর্বময়…!

দুই বাংলা তথা ভারতের পশ্চিম বাংলা আর বাংলাদেশের অভিন্ন জাতিসত্তায় তাই বারবার ফিরে এসেছে দুই বাংলার শিল্পীদের অসাধারণ সব যুগল সুরের কথন..!

এরই পরমপরায় আগামী কাল বাংলাদেশের ঈদুল আজহা উপলক্ষে সঙ্গীতপ্রেমীদের জন্য দারুণ এক যুগল বন্দী প্রকাশ হলো এপার বাংলার সুরের স্বরস্বতী ‘শুভমিতা ব্যানার্জি’ আর ওপার বাংলার এই সময়ের জনপ্রিয় কন্ঠশিল্পী ‘রঞ্জন চৌধুরী’ এর যুগলপ্রেমের গান ‘ বলতো তুমি আমাদের ভালোবাসা কোন কূলে করলো নোঙ্গর’…!

বাংলাদেশের প্রবাদ প্রতিম শিল্পী প্রবাল চৌধুরীর সুযোগ্য পুত্র রঞ্জন চৌধুরীর অসাধারণ সুরে, পঙ্কজ দেব অপুর সুন্দর লেখায় এই গানটি ইতিমধ্যে সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্মে রিলিজের তিন দিনের মাথায় ব্যপক শ্রোতা প্রিয়তা অর্জন করে নিয়েছে…!

গানটির যুগল ফ্রেমে নিজের অসাধারণ স্বকীয়তায় শুদ্ধ সুরের শিল্পী ‘শুভমিতা ব্যানার্জি’ এপার বাংলা তথা পশ্চিমবাংলাসহ ভারতের একজন সঙ্গীত রত্ন হিসেবে ব্যাপকভাবে বাঙ্গালী শ্রোতাদের হৃদয়ে প্রিয়জন হিসেবে নিজের যায়গা করে নিয়েছেন.. যা কিনা এই সময়ের সমগ্র পৃথিবীতে বাংলার গানের ভুবনকে এক গর্বের যায়গায় নিয়ে গেছে..! সঙ্গীত প্রেমী বাঙালীর এমন কোন সকাল হয়তো নেই যা শুভমিতার সুরের সুখ অনুভব দিয়ে শুরু না হয়..!

উল্লেখ্য যে ওপার বাংলা তথা বাংলাদেশের তরুণ জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী রঞ্জন চৌধুরী প্রায় ১০০ এর উপর সিনেমায় প্লেব্যাক ও নিজের একাধিক জনপ্রিয় একক গানের এলব্যামের মাধ্যমে বাংলাদেশের সঙ্গীত জগতের একজন উজ্জ্বল নক্ষত্র হয়ে ওঠার পাশাপাশি তিনি পাঁচবার জাতীয় টেনিস চ্যাম্পিয়ন সহ পেশাগত জীবনে একজন সফলতম চিকিৎসক হিসেবে নিজের বহুমুখী প্রতিভার স্ফূরণ প্রকাশ করে ইতিমধ্যে বাংলাদেশের তরুনদের আইডলে পরিনত হয়েছেন…!

কোভিডের জন্য যোগাযোগ ব্যাবস্থার সীমাবদ্ধতার কারণে যুগল প্রেমের মিষ্টি আধুনিক এই গানটির দুজন কণ্ঠশিল্পীর কন্ঠ রেকর্ড করা হয় ভারতের কলকাতার গানবাজনা স্টুডিও ও বাংলাদেশের চট্রগ্রামের কে এস ডিজিটাল স্টুডিওতে..! বাংলাদেশের এই সময়ের প্রতিভাবান কম্পোজার সব্যসাচী রনির কম্পোজিশনে গানটিতে সঙ্গদ দিয়েছেন বাংলাদেশের এই সময়ের প্রতিভাবান যন্ত্রশিল্পী তাহিম হাসান, নিখিলেশ বড়ুয়া ও প্রিতম আচার্য..! সম্পাদনায় ছিলেন পঙ্কজ চৌধুরী রনি ও রাব্বি এবং সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন কনক রাজবার..!

এই অস্থির গৃহবন্দী সময়ে মানুষের জন্য নিজেকে একটু ভালো রাখতে সঙ্গীত যেন এক স্বর্গীয় সঙ্গ.. এই গানটির মাধ্যমে শুভমিতা ব্যানার্জি ও রঞ্জন চৌধুরীর জুটি বাংলা গানকে আরও সম্বৃদ্ধ করে এগিয়ে নিয়ে গেলেন দুই বাংলার মানুষের সাংস্কৃতিক সেতুবন্ধনের সুর-স্বরুপের সুন্দর প্রকাশের যাদুকরী শিল্পে…!

শুভকামনা রইলো শিল্পীদের প্রতি..!

সৌগত রাণা কবিয়াল
( কবি সাহিত্যিক ও কলামিস্ট )

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here