ঊর্ধ্বমুখী আলু বীজের দাম এবং রাসায়নিক সারের কালোবাজারিতে দিশেহারা চাষীরা।

0
151

আবদুল হাই, বাঁকুড়াঃ ঊর্ধ্বমুখী আলু বীজের দাম এবং রাসায়নিক সারের কালোবাজারিতে মাথায় হাত আলুচাষীদের। এমনই ছবি ধরা পড়েছে বাঁকুড়া জেলার কোতুলপুর জয়পুর সহ বেশ কিছু এলাকায়। 10-26-২৬ফার্টিলাইজার এর সরকারি দাম1470 টাকা সেখানে চাষীদের কাছ থেকে নেওয়া হচ্ছে 1950 টাকা ।পটাশ যার সকারী দাম -1000 টাকা ,D.A.P-1200 ,
ইউরিয়া -266। ফসপেট -400 ,
সেখানে সায়নিক সার 1,900 থেকে 2000 টাকায় কিনতে হচ্ছে চাষীদের। রাসায়নিক সারের এই কালোবাজারিতে স্থানীয় এগ্রিকালচার অফিসার ও প্রশাসনের উদাসীনতায় অসহায় হয়ে পড়েছেন আলুচাষিরা।

একদিকে আলু বীজের দাম বেড়েই চলেছে নিত্যদিন ,
আর অন্যদিকে রাসায়নিক সারের কালোবাজারি,এই দুই-এর চাপে নাজেহাল হয়ে পড়েছেন আলু চাষীরা। বারবার নিম্নচাপ‌ও চিন্তার ভাঁজ ফেলেছে আলুচাষিদের কপালে। সব মিলিয়ে অসহায় হয়ে পরেছেন চাষীরা।

#যেখানে সরকার রাসায়নিক সারের প্রতি প‍্যাকেটের ভর্তুকি দিচ্ছে ফার্টিলাইজার কোম্পানিকে ।
তারপরও এত দাম বাড়াচ্ছে কেন বাঁকুড়া জেলার ফার্টিলাইজার ব্যাবসায়ীরা,
সেটাই বুঝতে পারছেন না ক্ষুদ্র চাষীরা,

#রাসায়নিক সার বিক্রি হচ্ছে 1950-2,000 টাকায়। দ্বিগুণ দাম তাও নিরুপায় হয়ে সেই রাসায়নিক রাসায়নিক সার কিনতে হচ্ছে আলুচাষিদের। এই সারের কালোবাজারি নিয়ে প্রশাসনের উদাসীনতায় দিশেহারা চাষিরা।
#তাদের দাবি প্রশাসন যেন অবিলম্বে এই কালোবাজারি বন্ধ করেন, তা না হলে আমাদের আলু চাষ বন্ধ করতে হবে। দাবি
স্থানীয় এক আলুচাষীর ,

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here