ক্যানিংয়ের পুকুর থেকে শিশু কন্যার দেহ উদ্ধার,অভিযোগ খুন করা হয়েছে,এলাকায় চাঞ্চল্য,তদন্তে পুলিশ।

0
264

সুভাষ চন্দ্র দাশ,ক্যানিং -সাত সকালেই এক শিশু কন্যার দেহ পুকুরে ভাসতে দেখে এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়ালো। ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার সকালে ক্যানিং থানার অন্তর্গত তালদি গ্রাম পঞ্চায়েতের বয়ারসিং গ্রামে। ঘটনার খবর পেয়েই ক্যানিং থানার পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে শিশুকন্যা কে উদ্ধার করে ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা মৃত বলে ঘোষণ করেন।মৃতের নাম রিয়া নস্কর(৭)।
স্থানীয় সুত্রে জানা গিয়েছে গত প্রায় বছর বারো আগে টালিগঞ্জের প্রিয়াঙ্কার সাথে বিয়ে হয় বাবু নস্করের। দম্পতির প্রথম কন্যা বছর দুই আগেই মারা যায়।রাস্তায়,বাজার হাটে কাগজ,প্লাস্টিক কুড়িয়ে দিন যাপন করেন ওই দম্পতি। গত প্রায় দুবছর আগে ক্যানিংয়ের তালদির বয়ারসিং গ্রামের একটি ভাড়া বাড়িতে বাড়ি ভাড়া নিয়ে বসবাস করতে থাকেন ওই দম্পতি।দম্পতির বছর সাত বয়সের এক কন্যা রয়েছে। গত রবিবার বাড়িতে খেলছিল সে। এরপর আচমকা নিখোঁজ হয়ে যায় শিশু কন্যা।বিস্তর খোঁজাখুজি করে না পেয়ে হতাশ হয়ে পড়েন কাগজ কুড়ানী দম্পতি। এরপর অন্যান্য ভাড়াটিয়া,গ্রামের মানুষ এবং বাড়ির মালিক বিভিন্ন এলাকায় খোঁজ করতে থাকেন ওই শিশু কন্যার।না পেয়েই শেষ পর্যন্ত রবিবার ক্যানিং থানায় একটি নিখোঁজ অভিযোগ দায়ের করেন দম্পতি। পরে প্রতিবেশীরা আরো বিস্তর খোঁজখবর শুরু করেন। যাতে করে শিশু কন্যা কে পাওয়া যায় তার জন্য এলাকার মানুষের সহযোগিতায় বিভিন্ন বাজার,হাট,ষ্টেশন চত্বরে শিশুকন্যার ছবি মেরে পোষ্টার সাঁটিয়ে দেয়।মঙ্গলবার সকালে আচমকা ভাড়া বাড়ির সামনে এক দেহ ভাসতে দেখে ভাড়াটিয়া অপর এক নাবালক।এরপর পুকুরে কি ভাসছে সন্দেহ হয়। দেখা যায় নিখোঁজ শিশু কন্যার দেহ। হইচই পড়ে যায় এলাকায়। খবর দেওয়া হয় ক্যানিং থানার পুলিশের কাছে। পুলিশ দেহটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তে পাঠিয়েছে।
মৃত শিশু কন্যার বাবা-মায়ের অভিযোগ ‘তাদের মেয়ে জলে ডুবে মরতে পারে না। তাকে খুন করা হয়েছে।’
কে বা কারা খুন করতে পারে?এমন প্রশ্নের উত্তরে ওই দম্পতি জানায় গত প্রায় দুমাস আগে এক মহিলার সাথে গন্ডগোল হয়েছিল। সেই মহিলাকে কে ঠিক চিনি না। ওই মহিলাই আমার মেয়েকে খুন করেছে।আমরা ক্যানিং থানায় অভিযোগ দায়ের করেছি।’
বাড়ির মালিক রোজিনা শাহ বলেন ‘ঘটনা টা খুব দুঃখ জনক। পুলিশ সঠিক তদন্ত করে দোষীদের উপযুক্ত শাস্তি দিক।’
অন্যদিকে সমস্ত ঘটনা খতিয়ে দেখে শিশু কন্যার মৃতদেহ ময়না তদন্তে পাঠিয়ে মৃত্যু রহস্য উন্মোচন করতে তদন্ত শুরু করেছে ক্যানিং থানার পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here