পুজো আর মাত্র কয়েকদিন বাকি সরস্বতী ঠাকুরের চাহিদা নেই,দুশ্চিন্তায় মৃতশিল্পীরা।

0
528

আব্দুল হাই, বাঁকুড়াঃ – করোনা কালে সেভাবে কাজ নেই, চরম বিপাকে বাঁকুড়া জেলার ইন্দাস ব্লকের মৃৎশিল্পীরা
বাঁকুড়ার মৃৎ শিল্প বিখ্যাত। বাঁকুড়া জেলার ইন্দাস ব্লকের গোবিন্দপুর , ইন্দাস গ্রামের তৈরি বড়ো বড়ো সরস্বতী ঠাকুর যেত বহু স্কুলে ও কলেজে এবং অন্যান্য গ্রামে। কিন্তু এই দুই বছর করোনা আতঙ্কের জন্য সব বদলে গিয়েছে । মৃৎ শিল্পীদের দাবী করোনা কালে তাদের রেশমী দিন আর নেই এখন তাদের পেট চালানোই মুশকিল হয়ে দাঁড়িয়েছে। ঠাকুর তৈরির সামগ্রীর দাম আকাশছোঁয়া। আগের মতো বিক্রি আর নেই। তারই প্রভাব পড়েছে এই উৎসবের মূল কারিগর মৃৎশিল্পীদের উপর। বিপাকে পড়েছেন মৃৎশিল্পীরা। দুই থেকে তিন বছর আগে বছর আগে এই সময় ব্যস্থতা ছিল তুঙ্গে। এবছর তখন তাদের ব্যস্ততা অনেক কম লক্ষ্য করা গেল। প্রতিমা তৈরির সামগ্রীর দাম বাড়লেও বাড়েনি প্রতিমার দাম। ফলে তাদের লভ্যাংশ একেবারে তলানিতে ঠেকেছে। তাদের দাবি স্কুল,কলেজ বন্ধ হওয়ার কারণে ঠাকুরের চাহিদা নেই বললেই চলে।সরকারের কাছ থেকে কোনরকম সাহায্য মিললে তবেই এই শিল্পকে বাঁচিয়ে রাখা যাবে।