শম্ভুনগরে দুয়ারে সরকার কর্মসূচি তে আদিবাসী নৃত্যে পা মেলালেন পঞ্চায়েত প্রধান।

0
878

সুভাষ চন্দ্র দাশ,ক্যানিং – বৃহস্পতিবার দক্ষিণ ২৪ পরগনার প্রত্যন্ত গোসাবা বিধানসভা কেন্দ্রের শম্ভুনগর হাইস্কুল মাঠে দুয়ারে সরকার কর্মসূচি তে বিভিন্ন প্রকল্পে কাগজপত্র জমা দিতে ঢল নামলো সাধারণ মানুষজনের।এমনকি এদিনের ক্যাম্পে আদিবাসী সম্প্রদায়ের মানুষের ভিড় ছিল চোখে পড়ার মতো।এদিন শম্ভুনগর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান বরুন(চিত্ত) প্রামানিক দুয়ারে সরকার কর্মসূচি তে বিভিন্ন প্রকল্পের সাধারণ মানুষ জনের ফর্ম নিজের হাতেই তিনি পূরণ করে দেয়।এমনকি এলাকার আদিবাসী সম্প্রদায়ের মানুষজনকে উৎসাহ দিতে আদিবাসী সম্প্রদায়ের মহিলাদের সাথে আদিবাসী নৃত্যে তাল মেলায় খোদ পঞ্চায়েত প্রধান বরুন(চিত্ত) প্রামানিক।আর এই নৃত্যের তালে একদিকে সুন্দরবনের কৃষ্টি ও সংস্কৃতি এবং অন্যদিকে দুয়ারে সরকার কর্মসূচি তে উৎসাহ দিতে এমনি অভিনব উদ্যোগ নেয় শম্ভুনগর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান বরুন(চিত্ত) প্রামানিক।তিনি বলেন এই পঞ্চায়েতের প্রথম দুয়ারে সরকার কর্মসূচি তে ভালো সাড়া পড়েছে।প্রায় ৩ হাজার সাধারণ মানুষ জন এসেছে বিভিন্ন প্রকল্পের কাগজপত্র জমা দিতে।এমনকি যাঁরা ফর্ম পূরণ করতে পারেনি তাদের আমি নিজেই ফর্ম পূরণ করে দিয়েছি।এরপর আগামী দিনে আরও ৩ টি ক্যাম্প হবে দুয়ারে সরকার কর্মসূচি তে।
তিনি আরো বলেন বিগত দিনে শম্ভুনগর গ্রাম পঞ্চায়েত ভালো কাজের সুবাদে ২০০৮ সালে অসমের গুয়াহাটি থেকে রাষ্ট্রপতি প্রতিভা দেবী সিং পাতিলের কাছ থেকে রাষ্ট্রপতি পুরষ্কার পেয়েছিল।২০০৯ সালে রাজ্যের মন্ত্রী আনিসুর রহমানের কাছ থেকে সেরা পঞ্চায়েত হিসাবে পুরষ্কার লাভ করে।২০১১ সালে প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং এর কাছ থেকে সেরা পঞ্চায়েতের শিরোপা পায়।এবং সর্বশেষ ২০১২ সালে রাজ্যের মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের কাছ থেকে সেরা পঞ্চায়েত হিসাবে পুরষ্কৃত হয়।বর্তমানে পঞ্চায়েতের সদস্য সংখ্যা এগারো জন। মোট জন সংখ্যা ১৫ হাজারের একটু বেশি। আগামী দিনে যাতে আবারও শম্ভুনগর পঞ্চায়েত পুরষ্কার পায় সেই উদ্যোগ নেওয়া হবে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here