আবার বসন্ত এসেছে, শিমুল, পলাশ, কৃষ্ণচূড়া ফুটেছে বিদ্যালয়ের উদ্যানে। স্কুল খোলার আনন্দে শিক্ষক অজয় কুমার রজক বেঁধেছে গান।

0
321

আবদুল হাই, বাঁকুড়াঃ করোনা পরিস্থিতির ভয়াবহতা কাটিয়ে দীর্ঘ দু’বছর পর খুলেছে স্কুল।
স্কুল বন্ধের সময় নিয়ম করে শিক্ষকদের স্কুলে যেতে হলেও করোনা বিধি-নিষেধের জেরে ছাত্র-ছাত্রীদের স্কুলে যাওয়ার উপায় ছিল না, তাই ছাত্র-ছাত্রীর জন্য স্কুলে শিক্ষকদের মন জুড়ে বাসা বেঁধেছিল একরাশ হতাশা আর নিরানন্দ।
বসন্তের বাতাস যেমন কোকিলের কুহু কুহু কুজনে মন জুড়ে আনন্দ সঞ্চার করে তেমনি স্কুলে ছাত্র-ছাত্রীদের পড়াশোনার পাশাপাশি খেলার মাঠে হৈ-হুল্লোড়, কলতান, হাজার দুষ্টুমি এবং শিক্ষকদের স্নেহ-ভালবাসা আর অনুশাসনের হয়ে ওঠে নন্দনকানন কিন্তু করোনা কেড়ে নিয়েছিল সেই সুখের মুহূর্ত গুলি আর সেই কারণেই ভালো ছিলনা ছাত্র-ছাত্রী থেকে শিক্ষক মহলও। অবশেষে দীর্ঘ প্রায় দুই বছর পর করোনা কে হারিয়ে খুলে গিয়েছে প্রথম শ্রেণী থেকে দ্বাদশ শ্রেণী এবং কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের বন্ধ দরজা। খুশি সমস্ত স্তরের ছাত্র-ছাত্রী থেকে শিক্ষক মহল আর সেই খুশিতে গান বেধেছে সোনামুখী বি,জে হাইস্কুলের শিক্ষক অজয় কুমার রজক।