উড়ান-এর আয়োজন : প্রকৃত অর্থে বিশ্ব সঙ্গীত দিবস।

0
621

নদীয়া, নিজস্ব সংবাদদাতাঃ-একুশে জুন অর্থ্যাৎ বিশ্ব সঙ্গীত দিবসে উড়ান ঘটিয়ে ফেলেছে এক ঐতিহাসিক আয়োজন। ভাষা, কাল, সীমানার গণ্ডি পেরিয়ে সম্পন্ন হল উড়ান এর “মিউজিক্যালি ইউরস” – গ্লোবাল মিউজিক সামিট। উড়ান এর অফিসিয়াল ফেসবুক পেইজ এর এই লাইভ প্রোগ্রাম এ হাজির হন পাঁচটি দেশের ছয় জন আন্তর্জাতিক সঙ্গীত শিল্পী। অনুষ্ঠানের শুরুতেই উড়ান এর পক্ষ থেকে সঞ্চালক অনুপ বিশ্বাস জানিয়ে দেন উড়ান এর সামগ্রিক কর্মকান্ড নিয়ে, এবং পরিচয় করান দেশ বিদেশের সমস্ত শিল্পীর সাথে। গ্রিস এর পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন থিওলোগাস অ্যানাগনস্টোপুলাস, ইউ.এস.এ থেকে ছিলেন নাদীম আমিন, বাংলাদেশ থেকে আকাশ দাস, ইন্দোনেশিয়া থেকে কাকে খোলিস এবং ভারতবর্ষের সিকিমের আদিত্য প্রধান ও কলকাতা থেকে প্রবীর বিশ্বাস। উপস্থিত সমস্ত অতিথিরা নিজের নিজের স্থানীয় সুর, গান ও বাদ্যযন্ত্র দিয়ে পরিবেশন করেন নিজেদের সৃষ্টি । তৈরি হয় অদ্ভূত এক মুগ্ধতা, যেখানে কোনো বাধা নেই, তারকাঁটা নেই, বেড়া জাল নেই, নেই কোনো ভাষার-বর্ণ-ধর্মের বিভেদ। ভাষা সেখানে একটাই, মিউজিক আর মিউজিক। আর তা দিয়েই তাঁরা বলেন মানবতার কথা, ভালো থাকার কথা, এই সময়ের কথা । গানের ফাঁকে ফাঁকে আলোচনায় উঠে আসে সেই কথাই “music has no language, music has only its own language” । কেনো এই আয়োজন করা হল এ বিষয়ে আয়োজক সংস্থা “উড়ান” এর অনুপ বিশ্বাস কে জিজ্ঞেস করা হলে উনি বলেন, “আসলে এরকম পরিকল্পনার আলাদা করে কোনো কারণ নেই, বিশ্ব সঙ্গীত দিবস পালন করতে হলে, কি রকম হওয়া উচিত সেটায় আমরা করতে চেয়েছিলাম উড়ান এর সকল ভালোবাসার মানুষদের জন্যে । তাই এই আয়োজন, আর উড়ান এর সকল ইভেন্ট এ নতুন কিছু ছাপ থাকে, এটা তারই অংশ। আর এত মানুষ লাইভ এ উপস্থিত থেকে, প্রোগ্রাম শুনে এবং কমেন্ট করে যে একটা ইতিহাস তৈরি করবেন ভাবতে পারি নি। ” আসলেই তাই, ‘উড়ান’ এর এই আয়োজন নিয়ে গর্বিত জেলা তথা রাজ্যের উড়ান কে ভালোবাসার সব মানুষ।

নদিয়া
22.06.2020

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here