বিকল্প ব্যবস্থা না করে লেভেল ক্রসিং তুলে দেওয়া হলে বৃহত্তর আন্দোলনের হূমকি।

0
137

আবদুল হাই, বাঁকুড়াঃ দক্ষিণ-পূর্ব রেলের আদ্রা বাঁকুড়া সেকশনের বাঁকুড়া ও আঁচুড়ি রেলপথের মাঝখানে বাঁকুড়া শহরের রয়েছে বেশ কয়েকটি লেভেল ক্রসিং। সম্প্রতি রেল কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাঁকুড়ার ১৮ নম্বর ওয়ার্ডের রবীন্দ্র সরণি থেকে সিমীটারি রোড় কব্বরডাঙ্গা যাওয়ার রাস্তা তার উপরে থাকা লেভেল ক্রসিং সম্পূর্ণভাবে বন্ধ করা হবে এই মর্মে একটি নির্দেশিকা জারি করেছে রেল দপ্তর। নির্দেশ দেওয়া একটি আদেশনামা লাগানো হয়েছে রেল পথের লেভেল ক্রসিংয়ে পাসে। যেখানে লেখা রয়েছে “লেভেল ক্রসিং সম্পূর্ণ বন্ধ করা হইল। বিকল্প রাস্তা ব্যবহার করুন। “আগামী ১৩ ই ডিসেম্বর থেকেই বলবৎ হবে আদেশ অনুসারে রেল কর্তৃপক্ষ। আর এই নিয়ে শুরু হয়েছে আন্দোলন।

প্রায় প্রতিদিন দুই থেকে আড়াই হাজার মানুষ এই লেভেলক্রসিং ব্যবহার করেই যাত্রা যাতায়াত করেন এক প্রান্ত থেকে অপর প্রান্তে। লেভেলক্রসিং উঠে গেলে রাস্তা সম্পূর্ন বন্ধ হয়ে গেলে সমস্যায় পড়বেন প্রতিদিন যাতায়াত করা মানুষজন। সমস্যা হবে রেলে লাইনের অপর পাড়ে থাকা বিস্তীর্ণ অঞ্চলে মানুষজনদের। কোনরকম অগ্নিকাণ্ড, দুর্ঘটনাজনিত জনিত কারণে লেবেল ক্রসিং এর রাস্তা বন্ধ হয়ে গেলে অনেকটা ঘুরপথে তাদেরকে পৌঁছতে হবে গন্তব্যে। রেল লাইনের ঠিক পাশেই রয়েছে একটি বিড়ি বাঁধার কারখানা, রয়েছে একটি চাল মিল, এছাড়াও রয়েছে একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সমস্যায় পড়বেন সকলেই। রুজিরুটিতে টান পড়বে সাধারণ গরিব মধ্যবিত্ত মানুষ গুলোর।
আজ রেলে লাইনের অপর প্রান্তের মানুষ জন আন্দোলনে নেমেছেন। বিকল্প ব্যবস্থা হিসাবে আন্ডারপাস না করে তুলে দেওয়া যাবেনা লেভেল ক্রসিং এমনটাই দাবি আন্দোলনকারীদের। সেই মর্মে আজ তারা বাঁকুড়ার রবীন্দ্র সরণির লেভেল ক্রসিং থেকে মিছিল করে বাঁকুড়া ষ্টেশনে পৌঁছয়। বাঁকুড়া স্টেশন ম্যানেজার হাতে একটি স্মারকলিপি তুলে দেন। আগামী দিনে বিকল্প ব্যবস্থা না করে লেভেল ক্রসিং তুলে দিলে বৃহত্তর আন্দোলনের হুমকি দিয়েছেন আন্দোলনকারীরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here