মালবাহী ট্রাকের ধাক্কায় হেলমেট পরিহিত বাইক আরোহীর মর্মান্তিক মৃত্যু।

0
321

সুভাষ চন্দ্র দাশ,ক্যানিং – তখনও বাইকের আলো জ্বলছে,নিভছে।কিন্তু সুরক্ষা থাকা স্বত্বেও মর্মান্তিক পথ দুর্ঘটনায় শেষরক্ষা হল না। মৃত্যু হল বাইক চালকের।মৃতের নাম প্রফুল্ল ওরফে ভোলা রাউত(৪৪)।মৃতের বাড়ি বাসন্তী থানার অন্তর্গত হাড়ভাঙ্গী গ্রামে।স্থানীয় সুত্রে জানা গিয়েছে পেশায় মাছ ব্যবসায়ী প্রফুল্ল রাউৎ। পাড়ায় পাড়ায় মাছ বিক্রি করেন। রবিবার ভোরে ক্যানিং বাজারের প্রবীর মিস্ত্রীর মাছের আড়ৎ থেকে মাছ কিনেছিলেন। মাছ বিক্রির জন্য ক্যানিং থেকে বাসন্তীর উদ্দেশ্য রওনা দিয়েছিলেন বাইক চালিয়ে। বাইকের পিছনে ছিল মাছের ক্রেট।নিজের সুরক্ষার জন্য মাথায় ছিল হেলমেট।ক্যানিংয়ের মাতলা ব্রীজের মধ্যবর্তী স্থানে আচমকা তার বাইকের পিছনে সজোরে ধাক্কা দেয় মালবাহী একটি ট্রাক।বাইক সহ আরোহীকে টেনে হিঁচড়ে নিয়ে যায় প্রায় ১০০ মিটার পর্যন্ত।মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় ব্রীজের উপর ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়ে তার মাছ।ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় ওই মাছ ব্যবসায়ীর।সুযোগ বুঝে ঘাতক গাড়ি চালক এলাকা থেকে পালিয়ে গেলেও বাসন্তী থানার পুলিশের তৎপরতায় ঘাতক ট্রাকটি ধরা পড়ে।এমন মর্মান্তিক খবর এলাকায় চাউর হতে ঘটনাস্থলে হাজীর হয় হাজার হাজার মানুষ। হাজীর হয় বাসন্তী ও ক্যানিং থানার পুলিশ। দুর্ঘটনা গ্রস্থ বাইকটি উদ্ধার করে পুলিশ। পাশাপাশি ক্যানিং থানার পুলিশ মৃতদেটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পাঠায়। অন্যদিকে ঘাতক গাড়ীর চালকের খোঁজে জোর তল্লাশি অভিযান শুরু করেছে পুলিশ। কিভাবে এমন মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটলো সে বিষয়েও খতিয়ে দেখছে পুলিশ।
সাত সকালে পরিবারের একমাত্র উপার্জনকারীর মৃত্যু সংবাদ পৌঁছালে মৃতের পরিবার সহ হাড়ভাঙ্গী গ্রামে নেমে আসে শোকের ছায়া।