পরপর দুটি মন্দির সহ দুটি দোকানে দুঃসাহসিক চুরির ঘটনায় চাঞ্চল্য দুবরাজপুরের কুখুটিয়া গ্রামে।

0
225

বীরভূম থেকে সেখ ওলি মহম্মদঃ- একই সঙ্গে পরপর চারটে চুরি! দুটি মন্দিরে এবং দুটি দোকানে।
গতকাল রাতে বীরভূম জেলার দুবরাজপুর থানা এলাকার বালিজুড়ি পঞ্চায়েতের কুখুটিয়া গ্রামে পরপর চারটে জায়গায় চুরি হবার ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে গোটা গ্রামে। এলাকায় নিরাপত্তা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে।


স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে এই গ্রামের ৩০০বছরের প্রাচীন কৃষ্ণের মন্দির, যা শ্রী শ্রী দামোদরজীর মন্দির নামে খ্যাত। ররিবার রাতে দুষ্কৃতীরা মন্দিরের দরজার তালা ভেঙে রুপোর সিংহাসন, রুপোর তৈরি পৈতে, রুপোর তৈরি সাপ চুরি করে নিয়ে যায়। এই প্রাচীন মন্দিরের ইতিহাসে চুরির ঘটনা এই প্রথম। মন্দিরের সেবাইত নিরোদ বরণ রুজ জানান যে আজ সকালে একজন সেবাইত মন্দিরে এলে তিনি দেখতে পান তালা ভেঙ্গে দুস্কৃতিরা চুরি করে নিয়ে যায় মন্দিরের রুপোর তৈরি যাবতীয় জিনিসপত্র।

পাশাপাশি ওই গ্রামেরই দীঘির কালী মন্দিরের তালা ভেঙ্গে দুস্কৃতিরা রুপোর মুটুক, সোনার টিকলি, নথ, গলার হার, হাতের বালা, ও দুটি ধাগা চুরি করে নিয়ে যায় বলে জানান মন্দিরের সেবাইত বিপ্লব গাঙ্গুলি।

দুটি মন্দির ছাড়াও চুরি হয় ওই গ্রামেরই একটি ইলেক্ট্রিক দোকানের লক্ষাধিক টাকার সরঞ্জাম। সেখানে দুটি রুমের মধ্যে প্রথমে একটি ইলেক্ট্রিকের রুমের তালা ভাঙে কিন্তু কিছু পাইনি। তারপর দোকানের আরেকটি রুমের তালা ভেঙ্গে লক্ষাধিক টাকার সরঞ্জাম চুরি করে নিয়ে যায় বলে জানান দোকানের মালিক উজ্জল ঘোষ।

তাছাড়া কুখুটিয়া থেকে খয়রাশোল যাওয়ার মূল রাস্তায় একটি মনোহারী দোকানের তালা ভেঙ্গে কয়েক হাজার টাকার সরঞ্জাম ও নগদ কিছু টাকা নিয়ে চম্পট দেয় বলে জানান দোকানের মালিক রাহুল সাহা।
এই ঘটনায় সোমবার সকাল থেকেই এলাকাতে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় দুবরাজপুর থানার পুলিস। ইতিমধ্যেই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে দুবরাজপুর থানার পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here