স্বামীকে শ্বাসরোধ করে খুনের অভিযোগে আটক স্ত্রী, ক্ষীরপাই পৌরসভা এলাকায় চাঞ্চল্য, তদন্তে পুলিশ।

0
313

নিজস্ব সংবাদদাতা, পশ্চিম মেদিনীপুর:- পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার চন্দ্রকোনা টাউন থানার অন্তর্গত ক্ষীরপাই পৌরসভা এলাকার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের বামারিয়া এলাকায় রবিবার রাতে ঘটনাটি ঘটে। মৃত ব্যক্তির নাম তপন কুমার ঘোষ। তাঁর বয়স ৪৮ বছর। স্থানীয় সূত্রে জানা যায় যে তপন কুমার ঘোষের দুই মেয়ে ও এক ছেলে রয়েছে। বড় মেয়ে নার্সিং পড়ার জন্য বাইরে রয়েছে, একমাত্র ছেলে পড়াশোনার জন্য তার মাসির বাড়িতে রয়েছে, বাড়িতে ছোট মেয়ে বাসন্তী ঘোষ ও তার স্ত্রী রুপালি ঘোষ কে নিয়ে থাকতেন তপন কুমার ঘোষ। রবিবার রাতে রুপালি ঘোষ চিৎকার করে বলে আমার স্বামীর স্ট্রোক হয়েছে। প্রতিবেশীরা এসে দেখে মৃত অবস্থায় তপন কুমার ঘোষ বাথরুমে পড়ে রয়েছে। তার স্ত্রী দ্রুত স্বামীর শেষকৃত্য সম্পন্ন করার জন্য প্রতিবেশীদের জানায় । যার ফলে প্রতিবেশীদের সন্দেহ হয় ।এরপর প্রতিবেশীরা দেখতে পায় তার গলায় ও শরীরের একাধিক জায়গায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে । মৃত তপন কুমার ঘোষের ছোট মেয়ে বাসন্তী ঘোষ তার কাকা স্বপন ঘোষকে জানায় রাতে আরও দু’জন তার বাড়িতে এসেছিল। স্বপন ঘোষ অভিযোগ করে বলেন তার বৌদি রূপালি ঘোষের বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্ক ছিল। সেই বিষয় নিয়ে দাদার সাথে তার মনোমালিন্য শুরু হয়। যার ফলে দাদাকে শ্বাসরোধ করে তার বৌদি খুন করেছে বলে তিনি অভিযোগ করেন। এরপর প্রতিবেশীরা চন্দ্রকোনা টাউন থানার পুলিশকে বিষয়টি জানান। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে চন্দ্রকোনা টাউন থানার পুলিশ। ঘটনাস্থলে এসে পুলিশ মৃতদেহটি উদ্ধার করে সোমবার সকালে ময়নাতদন্তের জন্য ঘাটাল মহকুমা হাসপাতালের মর্গে পাঠায় ।সেই সঙ্গে রুপালি ঘোষকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ আটক করেছে। ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ক্ষীরপাই পৌরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের বামারিয়া এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে।অভিযুক্ত স্ত্রী কে আটক করে পুলিশ ওই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।