মিডিয়ায় শুভেচ্ছা বিনিময়ের এই রমরমার যুগে ফালাকাটা ব্লকের জটেশ্বরে এক সেচ্ছাসেবী সংস্থা ইংরেজি নতুন বছরের শুভেচ্ছা জানালো গ্রিটিংস কার্ড দিয়ে।

0
232

নিজস্ব সংবাদদাতা, আলিপুরদুয়ার:- সোশ্যাল মিডিয়ার বাড়বাড়ন্তের ফলে এখন হোয়াটসঅ্যাপ অথবা ফেসবুকেই শুভেচ্ছা বিনিময় সেরে নেয় তরুণ প্রজন্ম। স্বভাবতই নতুন বছরের শুভেচ্ছা জানিয়ে গ্রিটিংস কার্ড পাঠানোর অভ্যাস কমে যাওয়ারই কথা। কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়ায় শুভেচ্ছা বিনিময়ের এই রমরমার যুগে ফালাকাটা ব্লকের জটেশ্বরে এক সেচ্ছাসেবী সংস্থা ইংরেজি নতুন বছরের শুভেচ্ছা জানালো গ্রিটিংস কার্ড দিয়ে। শনিবার সকাল থেকেই জটেশ্বর এডুকেশন সেন্টারের সদস্যরা জটেশ্বর বাজার এলাকায় পথ চলতি মানুষ থেকে শুরু করে টোটো চালক, গাড়ি চালক দের নতুন বছরের শুভেচ্ছা জানানো হয় গ্রিটিংস কার্ড দিয়ে।

ওই স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার ইনচার্জ চয়নিকা রায় বলেন, ” বর্তমানে হাতে হাতে স্মার্টফোন চলে আসায় এখন যে কোনও উৎসবে পরিজন বা প্রিয়জনদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করা হয় ফোনেই। একটা সময় ছিল যখন গ্রিটিংস কার্ড কেনার হিড়িক পড়ে যেত তরুণ প্রজন্মের মধ্যে। নতুন বছরে শুভেচ্ছা বিনিময়ের একচেটিয়া মাধ্যম ছিল গ্রিটিংস কার্ড। সময়ের পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে গ্রিটিংস কার্ডের ব্যবহার কমেছে। সোশ্যাল মিডিয়ার যুগে ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ, টুইটারে বিনামূল্যে পরিজনদের শুভেচ্ছা বিনিময় সারছেন সকলেই। আগের মতো আর আন্তরিকতার সঙ্গে নতুন বছরের কার্ড বিনিময়ের অভ্যাস প্রায় উঠেই গিয়েছে। তাই আমাদের জটেশ্বর এডুকেশন সেন্টারের পক্ষ থেকে আজ পথ চলতি মানুষদের নতুন বছরের শুভেচ্ছা জানানো হলো গ্রিটিংস কার্ড দিয়ে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here