নদীয়ার শান্তিপুরে অকাল বৃষ্টি এবং করোনা পরিস্থিতিতে জলের দামে শাঁখআলু বিক্রি সংক্রান্তি উপলক্ষে শাঁখআলুর মেলায়।

0
390

নদীয়া, নিজস্ব সংবাদদাতা:- ভাঙ্গনের ফলে শান্তিপুর ভাগীরথী পূর্বে প্রবাহিত হতো যে পথ দিয়ে তা আজ পরিবর্তিত হয়েছে বহু বছর বাদে। নদীয়া শান্তিপুর বাগআঁচড়া পঞ্চায়েতের অন্তর্গত বেলের মাঠে এমনই ছাড়া গঙ্গার তীরবর্তী এলাকায় বহু কৃষকের জমি তলিয়ে গেছে গঙ্গাবক্ষে। ভূমিহীন কৃষক সরকারি সহযোগিতা না পেয়েই ভাগীরথী তীরবর্তী বালি মাটিতে নানান রকম চেষ্টা করে থাকেন তবে একমাত্র শাঁখআলুর চাষ তাদের নিরাশ করেনি। ওই এলাকায় সংক্রান্তির পরের দিন অর্থাৎ আজ পয়লা মাঘ গঙ্গা পূজা উপলক্ষে মকর সংক্রান্তির মেলায় স্থানীয় কৃষকরা সেই উৎপাদিত শাঁখআলু বিক্রি করেই সারা বছরের সংসার খরচ এবং ঘাটতি জোগাড় করে থাকেন। গত দু’বছর করোনা পরিস্থিতির কারণে প্রশাসনিক নানান বিধিনিষেধ থাকার ফলে সাধারণ মানুষের ভিড় লক্ষ্য করা যাচ্ছে না। ফলে বহু শাঁখালু ব্যবসায়ী কম দামেই বিক্রি করে দিতে বাধ্য হচ্ছেন। কৃষকরা জানান পরপর দুবার অকাল বর্ষণের ফলে ফলন কমেছে অনেকটাই, জল দাগ হয়ে যাওয়া ফেটে যাওয়া এ ধরনের নানান কারণে বর্ধমানের কালনা বা শান্তিপুরের বড় কোন ব্যবসায়ী পাইকারি নিতে চাইছেন না, ফলে বাধ্য হয়ে কম দামেই বিক্রি করে দিতে হচ্ছে। স্থানীয় মেলা কমিটির পক্ষ থেকে বলা হয়, প্রতিবছর 30- 40 জন কৃষক আসেন এই মেলায় কিন্তু এবছর মাত্র 3-4 জন, মেলায় আগত লোক সংখ্যা খুবই কম। অনেক দোকানী আসেনি এবার, না জেনে একান্তই দূর থেকে যারা এসে পড়েছেন তারাই বসেছেন। তবে স্থানীয় উৎসব থেকে যেমন এলাকার মানুষ বঞ্চিত তেমনি, একমাত্র অর্থ রোজগারে কৃষকের ফসল কমদাম হওয়ায় তারা ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here