দুই শিক্ষকের মানবিক মুখ : মানসিক ভারসাম্যহীন ব্যক্তিকে থানায় তুলে দিলেন।

0
226

বীরভূম, সেখ ওলি মহম্মদঃ- দুই শিক্ষকের প্রচেষ্টায় অজ্ঞাত পরিচয় মানসিক ভারসাম্যহীন ব্যক্তিকে বীরভূম জেলার দুবরাজপুর থানায় তুলে দেওয়া হল আজ। জানা যায়, গতকাল রাত্রে হেতমপুরের ঐ অজ্ঞাত পরিচয় মানসিক ভারসাম্যহীন ব্যক্তি একজনের বাড়িতে ঢুকে গেছিলেন। কিন্তু পাড়ার লোকজন চোর ভেবে তাঁকে দু’এক থাপ্পড় দেন। তখন শিক্ষক বিভাস দত্তের নজরে আসে বিষয়টি। তিনি ঐ ব্যক্তির সাথে কথা বলে বুঝতে পারেন যে উনি আদিবাসী সম্প্রদায়ের। তাই তাঁর এক শিক্ষকবন্ধু অজয় মাণ্ডিকে নিয়ে এসে তাঁর সাথে অলচিকি ভাষায় কথা বলেন এবং ঐ ব্যক্তির নাম ও পরিচয় জানা যায়। তিনি হলেন চৈতন মুর্মু, মালদা জেলার গাজল থানার আরাজি জালসা গ্রামের বাসিন্দা। তাই দুই শিক্ষক ও প্রতিবেশীরা রাত্রে খাওয়ার এবং থাকার ব্যবস্থা করে দেন ঐ ব্যক্তির। তারপর আজ সকালে তাঁকে মালদা রুটের বাসে চাপিয়ে দিতেন। কিন্তু সকাল হতেই সেই ব্যক্তি অন্যত্র পালিয়ে যান। দুই শিক্ষক তাঁর খোঁজ শুরু করেন। অবশেষে হেতমপুর পঞ্চায়েত এলাকার গিরিডাঙ্গাল গ্রামে তাঁকে খুঁজে পান। তাই আজ দুবরাজপুর থানাতে তাঁকে তুলে দেন। অবশ্য, ঐ ব্যক্তির বাড়ীর লোকজনদের খবর দেওয়া হয়েছে। তাঁরা মালদা থেকে দুবরাজপুরের উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here