বিশ্বাসঘাতকতা করলে ‘দুয়ারে প্রহারের’হুমকি উদয়নের, হঠকারী মন্তব্য বললেন রবীন্দ্রনাথ।

0
331

মনিরুল হক, কোচবিহারঃ পুরভোটের আগে ফের নতুন করে বিতর্কে জড়ালেন দিনহাটার বিধায়ক। দিনহাটার বিধায়ক তথা কোচবিহার জেলা তৃণমূলের চেয়ারম্যান উদয়ন গুহের বিরুদ্ধে রবিবার সন্ধ্যায় দিনহাটা পুরসভার ৯ নম্বর ওয়ার্ডে তৃণমূলের একটি কর্মিসভায় প্রকাশ্যে ভোটারদের হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠল। ওইদিন সভায় তিনি প্রকাশ্যে হুমকির সুরে বলেন যে, পুরসভার নারায়ণ ভান্ডার প্রকল্পের সুবিধা নিয়ে কেউ যদি বিশ্বাসঘাতকতা করেন, তাঁর জন্য ‘দুয়ারে প্রহার’প্রকল্প চালু হবে। তাঁর কথায়, সরকারি সুবিধা নিলে ভোট দিতে হবে তৃণমূলকেই।
এদিন কর্মিসভায় উদয়ন গুহ বলেন, ‘একটা কথা পুরুষদের বলে রাখি, আপনারা সরকারের সুযোগ সুবিধা নিয়েছেন, মিটিং-মিছিলে থাকছেন কিন্তু ভোট দিচ্ছেন অন্য জায়গায়। আমরা পুরসভার তরফে নারায়ণ ভান্ডারের সুযোগ দিয়েছি। নারায়ণের ভান্ডারের সুযোগ নিয়ে কেউ যদি বিশ্বাসঘাতকতা করেন, তাঁর জন্য নতুন একটি প্রকল্প চালু করা হবে— দুয়ারে প্রহার। এটা যেন মাথায় থাকে। দুয়ারে প্রহারের মুখোমুখি হতে না চাইলে সঠিক রাস্তায় চলুন।’
তাঁর এই মন্তব্যের পরই মুখিয়ে উঠেছে বিরোধী দলগুলি। তাদের কথায়, এই ভাষায় বিধায়ক ভোটারদের ভয় দেখাচ্ছেন। ভোট হল একটি সংবিধান প্রদত্ত অধিকার। কেউ ভোটারদের নির্দিষ্ট দলে ভোট দিতে বাধ্য করতে পারে না। উনি এভাবে হুমকির সুরে কথা বলে সাধারণ মানুষের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি করতে চাইছেন। কোচবিহার জেলা বিজেপির তরফ থেকে কোতোয়ালি থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়েছে।
শুধু বিরোধীরাই নয়। শাসকদলের অভ্যন্তরেও যথেষ্ট অস্বস্তি ধরা পড়েছে। এ বিষয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্য সহ সভাপতি রবীন্দ্রনাথ ঘোষ বলেন, উদয়ন গুহ যে বক্তব্য রেখেছেন, সেটা আমাদের দলের বক্তব্য নয়। আমাদের দল এধরনের বক্তব্য সমর্থন করে না। আমাদের দল গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে। গণতন্ত্রে এধরনের বক্তব্য কখনোই শোভা পায় না।
তিনি আরও বলেন, দুয়ারে সরকার প্রকল্পটি মুখ্যমন্ত্রীর এক ঐতিহাসিক প্রকল্প। যে প্রকল্পের মাধ্যমে রাজ্যের কোটি কোটি মানুষ পরিষেবা, সুবিধা পাচ্ছেন। দুয়ারে সরকার প্রকল্প সারা বিশ্বের মানুষের কাছে প্রশংসিত হয়েছে। সেই প্রকল্পকে নিয়ে এই কথা বলা ঠিক হয়নি। আমি ওঁকে বলব, এধরনের হঠকারী মন্তব্য থেকে বিরত থাকতে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here