চৈত্র সেলে অভাবনীয় ভাবনা,চা পান করলেই মিলবে খাঁটি সোনা নবদ্বীপের “গরীব টি স্টলে।

0
128

নদীয়া, নিজস্ব সংবাদদাতা:-  এক কাপ গরম চা’য়ে চুমুক, আর তাতেই মিলবে খাঁটি সোনা। ভাবছেন এ আবার কি? হাঁ ঠিক’ই শুনেছেন,পয়লা চৈত্র থেকে শুরু হয়েছে চায়ে চৈত্র সেল। যা পুরো চৈত্র মাস জুড়ে চলবে। এমন’ই অভাবনীয় ভাবনা গরিব টি স্টলের কর্ণধার ব্যানার্জি বাবুর। এতদিন পর্যন্ত আমরা সবাই জানতাম চৈত্র সেল মানেই তো বিভিন্ন রেডিমেডের পোশাক থেকে প্রসাধনী দ্রব্য, তাই বলে চায়ে চৈত্র সেল? হাঁ ৫ টাকার বিনিময়ে এক কাপ চা। আর তাতেই মিলবে খাঁটি সোনা। আপনি হয়তো ভাবছেন এটা কি করে সম্ভব। হ্যাঁ সেই অসম্ভবকে সম্ভব করতে ২০১৮ সাল থেকে গরিব টি স্টল এর কর্ণধার শিশির ব্যানার্জি চালু করেছিলেন চা’য়ে চৈত্র সেল। যদিও বা ২০-২১ সালে লকডাউন এবং ২২ সালে ব্যক্তিগত কারণে বন্ধ রাখা রাখার পর,২০২৩ সালে ১০ জন ভাগ্যবানকে দীঘা ভ্রমণ করিয়েছিলেন গরিব টি স্টলের কর্ণধার ব্যানার্জি বাবু। ২০২৪ এর ভাবনাটা একটু অন্যরকম। এবার আর ভ্রমণ নয়। গরম চায়ে চুমুক দিলেই উপহার স্বরূপ তুলে দেওয়া হবে ১০ জনকে খাঁটি সোনার গহনা। আর তা তুলে দেয়া হবে এক কাপ “চা”পান করলেই। চৈতন্য ভূমি নবদ্বীপ শহরের উত্তর পশ্চিমাঞ্চল প্রতাপনগর নবদ্বীপ স্টেট জেনারেল হাসপাতাল লাগোয়া গরিব টি স্টল, প্রতিদিন সকাল ৬ টা থেকে রাত ৯ টা পর্যন্ত টানা খোলা থাকে। সকাল থেকে রাত গরীব টি স্টলে গরম চায়ে চুমুক দিতে ভিড় জমান নবদ্বীপের পাশাপাশি পূর্ব বর্ধমান জেলার নাদনঘাট ও পূর্বস্থলী এলাকা আসা বহু মানুষজন। আগামী পয়লা বৈশাখ লটারির মাধ্যমে ১০ জন ভাগ্যবান বিজেতার হাতে তুলে দেয়া হবে উপহার স্বরূপ একেবারে খাঁটি সোনার নাক ছাবি।
এ বিষয়ে ওই চায়ের দোকানদার শিশির ব্যানার্জি বলেন, প্রতিবছরই আমি নতুনত্ব কিছু করি। তবে মাঝে করুণার কারণে কিছুটা সমস্যা হয়েছিল। তারপর আমি দশজনকে ঠিক এরকমভাবে দিঘার যাওয়ার সুযোগ করে দিয়েছিলাম। এবারের ভাবনাটা একদম আলাদা। লটারির মাধ্যমে ১০ জনকে খাঁটি সোনা দেওয়া হবে।
তবে তার এই নতুন নতুন ভাবনাকে বাহবা দিয়েছেন ক্রেতারা। ওই দোকানে প্রতিদিন চা খান তাপস বিশ্বাস। তিনি বলেন মূলত নিম্নবিত্ত এবং মধ্যবিত্ত শ্রেণীর মানুষরাই দোকানে গিয়ে চা খান। এই সোনার নাক ছবি সেরকম ১০ জন পেলে খুবই উপকৃত হবে। তার এই নতুনত্বের ভাবনাকে সাধুবাদ জানাচ্ছি।