অনির্বাণের অভিনব জনসংযোগ যাদবপুরে।

0
29

নিজস্ব সংবাদাতা, যাদবপুর: – তিনি যেন ঘরের ছেলে, তিনি যেন কাছের মানুষ , এক অভিনব কায়দায় প্রচার করতে দেখা গেল প্রার্থী অনির্বাণকে। গ্রামাঞ্চলে নববর্ষের আগমন উপলক্ষে চৈত্র মাসের শেষের দিকে চরক বা গাজন শুরু হয়, আর সেই উপলক্ষে ঢাক বাজে। হঠাৎ ঢাকের বাজনা শোনা গেল যাদবপুর এলাকায়। কি হেতু ঢাকের বাজনা কৌতূহলবশত বাড়ির ছাদে কিংবা রাস্তায় সাধারণ উৎসূক মানুষের ভিড়। এক দৃষ্টিতে তাকিয়ে আছে ঢাকের আওয়াজের দিকে। সম্বিৎ ফিরলো সাধারণ নাগরিকদের, না এটা কোন গাজন বা চড়কের ঢাকের আওয়াজ নয়, এটা যাদবপুর লোকসভা নির্বাচন কেন্দ্রের বিজেপি মনোনীত প্রার্থী ডক্টর অনির্বাণ গঙ্গোপাধ্যায়ের জনসংযোগ যাত্রা। মাঝে ২দিন বিরতি তারপর আবার স্বমহিমায় প্রচারে যাদবপুর লোকসভা কেন্দ্রে বিজেপি প্রার্থী ডক্টর অনির্বাণ গঙ্গোপাধ্যায় মহাশয়।

সোনারপুর উত্তর বিধানসভা কেন্দ্রে তিনি জনসংযোগ করলেন নবগ্রাম লোকনাথ মন্দিরে পুজো দিয়ে, ভোটের প্রচার শুরু করলেন। সঙ্গে চলল স্লোগান “জয় শ্রীরাম” ধ্বনিতে মুখরিত হল এলাকা, সঙ্গে প্রার্থীকে জেতানোর স্লোগান – এবার যাদবপুর লোকসভা নির্বাচনের ভোটে জিতবে কে বিজেপি আবার কে। প্রার্থী হাত জড়ো করে ভোট প্রার্থনা করলেন । বুকে জড়িয়ে আবার হাতে হাত মিলিয়ে অভিনন্দন গ্রহণ করলেন প্রার্থী। ঢাকের বাদ্যির তালে তালে চলল প্রচার। জনসংযোগ যাত্রা শেষ হলো শিলালিপি পর্যন্ত । প্রার্থীকে এক ঝলক দেখার জন্য রাস্তার মোড়ে মোড়ে দাঁড়িয়ে ছিলেন কচিকাচা থেকে শুরু করে বৃদ্ধা বয়স্ক ভোটারগন। কয়েক ঘন্টা বিরতির পর আবার বৈকাল ৪টা থেকে টালিগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রের নরেন্দ্র মিষ্টান্ন ভান্ডার থেকে জনসংযোগের যাত্রা শুরু করলেন প্রার্থী।

কখনো ছাদের দিকে তাকিয়ে হাত জড়ো করে ভোট প্রার্থনা করলেন, কখনো আবার রাস্তার পাশে মুদির দোকান, চলমান অটো যাত্রী কিংবা চলমান মোটরসাইকেল আরোহীদের কাছ থেকে আশীর্বাদ গ্রহণ করলেন। বিকেল ৪টা থেকে সন্ধ্যা ৭ টা পর্যন্ত নিরন্তন চললো জনসংযোগ যাত্রা। জনসংযোগ যাত্রা শেষ হলো ভারত গেট এলাকা পর্যন্ত। সোনারপুরে বিজেপি প্রার্থীকে জেতানোর জন্য জনসাধারণকে অনুরোধ করলেন ডক্টর অনির্বাণ গঙ্গোপাধ্যায় মহাশয়।