নিট প্রশ্নপত্র ফাঁস কাণ্ডে গ্রেফতার মাস্টারমাইন্ড রবি অত্রি…. সলভার গ্যাং এর কাজ অনুমান পুলিশের।

0
21

নিজস্ব প্রতিনিধি, দেবারতি গোস্বামী:-  নিট অর্থাৎ সর্বভারতীয় মেডিকেল প্রবেশিকা পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁস ঘিরে চাঞ্চল্যকর পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে গোটা দেশে,যা নিয়ে সরব ডাক্তারি পরীক্ষার্থী থেকে সাধারণ জনগণ। এই নিয়ে রাজনৈতিক চর্চা ও তুঙ্গে। এইরকম উত্তপ্ত পরিস্থিতির মধ্যেই শনিবার নিটের প্রশ্নফাঁস কাণ্ডের মাস্টারমইন্ড রবি অত্রিকে গ্রেটার নয়ডা থেকে গ্রেফতার করল পুলিশ। তাকে গ্রেফতার করেছে উত্তরপ্রদেশ পুলিশের স্পেশ্যাল টাস্ক ফোর্স বা এসটিএফ। পুলিশ জানতে পেরেছে, এই গোটা কাণ্ডের পিছনে রয়েছে ‘সলভার গ্যাং’, যার মাথা এই রবি অত্রি। কিন্তু কে এই রবি অত্রি???? কিভাবেই বা তার প্রবেশ নিট দুর্নীতি কাণ্ডে???? আসুন দেখে নেওয়া যাক …..পুলিশ সূত্রে খবর, ২০১২ সালে মেডিক্যালের প্রবেশিকা পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের জন্য তাঁকে একবার গ্রেফতার করেছিল দিল্লি পুলিশ। রবি নিজেও নিট পরীক্ষার প্রস্তুতিতে কোটা গেছিলেন। কিন্তু তারপরই তিনি ‘সলভার গ্যাং’-এর সংস্পর্শে আসেন। টাকার লোভে নিজে পড়াশোনা ছেড়ে দিয়ে অন্যের হয়ে পরীক্ষায় বসতেন। ধীরে ধীরে প্রশ্নফাঁসের কাজে হাত পাকাতে শুরু করেছিলেন সে সময় থেকেই। আর এই ভাবেই আস্তে আস্তে প্রশ্নপত্র দুর্নীতি কাণ্ডের মাইন্ড হয়ে ওঠেন রবি।এছাড়াও শনিবার
দেওঘর থেকে বাকি ৫ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এই নিয়ে নিট প্রশ্নপত্র ফাঁস কাণ্ডে গ্রেফতারের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ১৯। সন্দেহভাজন বেশিরভাগ চক্রীরা বিহারের বিহারের কলেজ কর্মী বলেই জানা যাচ্ছে | পুলিস সূত্রে খবর,বিহারের নুরসরাইয়ের হর্টিকালচার কলেজের কর্মী সঞ্জীব মুখিয়া, অমিত, সিকেন্দ্র,কে গ্রেফতার করা হয়েছে। পুলিশের তরফে জানা যাচ্ছে যে পাঁচ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে, তাদের জেরা করার জন্য পাটনায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। অন্যদিকে গ্রেফতার হওয়া অভিযুক্তদের মধ্য থেকে অমিত আনন্দ নামের এক অভিযুক্ত স্বীকারও করেছেন, তিনি ৩০-৩২ লক্ষ টাকায় নিট-এর প্রশ্নপত্র বিক্রি করেছিলেন পরীক্ষার আগের দিন৷ কমপক্ষে ১৬ জন এডুকেশন মাফিয়ার কাছে প্রশ্নপত্র বিক্রি করা হয়েছিল৷
তদন্তকারীদের অনুমান, প্রথমে ঝাড়খণ্ডের হাজারীবাগের একটি সেন্টার থেকে নিটের প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়েছিল । তারপর সেখান থেকে সেই প্রশ্নপত্র অন্যত্র ছড়িয়ে পড়ে। পাটনায় উদ্ধার হওয়া পুড়ে যাওয়া প্রশ্নপত্রে ছাপানো পুস্তিকা থেকে বিষয়টি প্রকাশ্যে এসেছে।

এরমধ্যে গ্রেফতার হওয়া অন্যতম অভিযুক্ত ইঞ্জিনিয়ার সিকান্দার আরজিডি নেতা তেজস্বী যাদবের ব্যক্তিগত সচিবের ঘনিষ্ঠ বলেই জানা যাচ্ছে রাজনৈতিক মহল সূত্রে | যা নিয়ে রাজনৈতিক চর্চাও তুঙ্গে |
প্রসঙ্গত নিট অর্থাৎ সর্বভারতীয় মেডিকেল পরীক্ষাটি ১৩ টি ভাষায় অনুষ্ঠিত হয় ৫ই মে রবিবার ২০২৪। নিটের ফলাফল বের হয়ে ৪ঠা জুন ২০২৪। নিটের ফলপ্রকাশের পর তাতে দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। মোট পরীক্ষার্থীদের মধ্যে ৬৭ জন ওই পরীক্ষায় ১০০ শতাংশ নম্বর পেয়ে প্রথম হয়েছেন। তাঁদের মধ্যে অনেকে একই পরীক্ষাকেন্দ্রের।

টেট থেকে নিট, শিক্ষক থেকে ডাক্তার, সবরকম প্রবেশিকা পরীক্ষায় যেভাবে প্রশ্নপত্র ফাঁস হচ্ছে এবং মাফিয়া রাজের দুর্নীতির তথ্য হাতে আসছে তাতে শঙ্কায় ছাত্রসমাজ থেকে অভিভাবকরা |