রক্তের লাল চিহ্ন : ফারজানা আহমেদ।

0
956

নিঃশব্দ রাতে সারাদিনের ধূলিমাখা পথে,তোমার
আমার অক্লান্ত যত সব।ফাল্গুনী বাতাস,অর্ধচন্দ –
গভীর কোন কালো রাতে,শুকনো পথে রক্তের –
লাল চিহ্ন বিদীর্ণ আত্ম চিৎকার, তবুও নির্লিপ্ত
তবুও মহাজ্ঞানী গুণী। শকুনেরা উড়ে যায় চোখে
জলন্ত উনুন।রবণের হাতে বিষের বাঁশি।
পলাশের রঙে লেখা পড়েছে উত্তাল ঢেউয়ের তালে,
নিশীথে নিশিতমানব অবলীলায় ধ্বংস করে –
দখলদার শত্রু বিশেষ দখলদারি, ভেঙে ফেলে –
ভেঙে ফেলা মেরুদণ্ড। রক্তের স্রোত বয়ে চলে
তখনো।তখনো না, তার অনেক পর উদিত হয়,উদিত
সবুজের বুকে লাল সূর্য।বাতাসে স্বাধীনতার সুর।

ঢাকা /বাংলাদেশ