বাংলা আবাস যোজনায় আবারও কাটমানির অভিযোগ মানিকচকের এনায়েতপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধানের স্বামীর বিরুদ্ধে।

0
122

মালদা, নিজস্ব সংবাদদাতাঃ- বাংলা আবাস যোজনায় আবারও কাটমানির অভিযোগ মানিকচকের এনায়েতপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধানের স্বামীর বিরুদ্ধে। এবার অভিযোগের তীর তৃনমূল কংগ্রেস পরিচালিত পঞ্চায়েত প্রধান মনিরা খাতুনের স্বামী- শেখ সুলতান এর বিরুদ্ধে।
অভিযোগ বাংলা আবাস যোজনা ঘর পাইয়ে দেওয়ার নাম করে কুড়ি হাজার টাকা দাবি করেন পঞ্চায়েত প্রধানের স্বামী ও পঞ্চায়েত সদস্য মীর হামিদুল। টাকা না দিলে ঘর মিলবে না বলে হুমকি প্রধানের স্বামী শেখ সুলতান ও আরেক সদস্য মীর হামিদুলের বলে অভিযোগ। এই মর্মে উপভোক্তা লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন মানিকচক ব্লকের বিডিও সাহেবের কাছে।
উল্লেখ্য গত দুদিন আগে এনায়েতপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের এক অস্থায়ী কর্মীর বিরুদ্ধে বাংলা আবাস যোজনায় কাটমানির অভিযোগ ওঠে। আর অভিযোগের মাত্র দুইদিন পরে আবারও কাটমানির অভিযোগ এবার প্রধানের স্বামী ও আরেক পঞ্চায়েত সদস্য মির হামিদুলের বিরুদ্ধে। মানিকচক বিডিও কাছে কাটমানির বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেন এনায়েতপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের উপভোক্তা রুবিনা খাতুন।
অভিযোগকারিণী রুবিনা খাতুন অভিযোগ করে বলেন, আমার কাছে কুড়ি হাজার টাকা দাবি করে প্রধানের স্বামী সুলতান ও পঞ্চায়েত সদস্য হামিদুল। অগ্রিম ১০ হাজার টাকা এবং একাউন্টে টাকা ঢোকার পর আরো ১০হাজার টাকা দাবি জানানো হয়। আমি খুব গরিব। দাবি অনুযায়ী টাকা টাকা দিতে না পারায় ঘরের জন্য তদন্ত আটকে রেখেছে। যার জন্য একাউন্টে টাকাও ঢুকছে না। উল্লেখ্য দুমাস ধরে মেম্বার প্রধানের কাছে ঘুরাঘুরি করে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র অফিসে জমা দিলেও বাড়ির তদন্ত করেনি, যারা টাকা দিয়েছে তাদের বাড়ির তদন্ত ইং- ৯/১২/২১ হলেও আমার বাড়ির তদন্ত না করেই চলে যায়। অসহায় হয়ে অভিযোগ করাতে তার পরদিনই তরিঘরি ১০/১২/২১ তারিখ বাড়ির তদন্ত করা হয়।

তবে এই বিষয়ে এনায়েতপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান মনিরা খাতুন জানান, মিথ্যা অভিযোগ করা হয়েছে। আমার স্বামী এ ব্যাপারে কোনো ভাবে যুক্ত নয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here