বিসর্জন ঘাটে গ্রীন সিটি প্রকল্পাধীন বিশ্রামাগারে দিনের পর দিন চুরি যাচ্ছে চেয়ার দরজা, রাতেই ঘাটে পৌঁছালেন পৌর প্রশাসক সহকারি প্রশাসক।

0
396

নদীয়া, নিজস্ব সংবাদদাতা:- পশ্চিমবঙ্গ সরকারের গ্রীন সিটি প্রকল্পের অর্থে শান্তিপুর পৌরসভার তত্ত্বাবধানে তৎকালীন পৌর প্রয়াত অজয় দের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় শান্তিপুরের গুপ্তিপাড়া, বড়বাজার এবং মতিগঞ্জ তিনটি প্রধান বিসর্জন ঘাটের পাশে মনোরম পরিবেশে অত্যাধুনিক বিশ্রামাগার স্থাপিত হয়েছিলো।
প্রবীণ নাগরিক, মহিলা শিশুরা মর্নিং ওয়াকেই হোক বা বিকেলে ঘুরতে যাওয়ার পথে অনেকেই বিশ্রাম নিয়ে থাকেন।
কিন্তু বেশ কয়েক মাসের মধ্যেই লোহার চেয়ার দুটি লোপাট হয়ে যায় মতিগঞ্জ বিসর্জন ঘাটে, স্টিলের গেটের ছাওনির একটা বড় অংশ উধাও হয়ে যায়। গতকাল সন্ধ্যায়, স্টিলের গেটের একটি অংশ পাশের জঙ্গল থেকে উদ্ধার করা হয়, অপর আর এক অংশের হদিশ পাওয়া যায়নি।
সাংবাদিকদের ডাকে উপস্থিত হন শান্তিপুর পৌরসভার প্রশাসক সুব্রত ঘোষ এবং সরকারি প্রশাসক শুভজিৎ দে।
দুটি সিসি ক্যামেরা লাগানো রয়েছে ওই এলাকায়। এবং তা খতিয়ে দেখে দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেন পথচারীরা।
এ প্রসঙ্গে সুব্রত ঘোষ জানান, পৌরসভার পক্ষ থেকে এত বড় শান্তিপুরের বিভিন্ন সরকারি সম্পত্তি সমস্ত রক্ষণাবেক্ষণ কতটুকু সম্ভব! এ বিষয়ে এগিয়ে আসতে হবে সাধারণ মানুষকেই। সুভজিৎ দে জানান, এ ধরনের ঘৃণ্য কাজের সাথে যুক্ত সামান্য কতিপয় দু একটা মানুষ, সকলে সজাগ থাকলে অনেকটাই রক্ষা করা সম্ভব। শান্তিপুরের সৌন্দর্যায়ন করার দায়িত্ব পৌরসভার, তবে তা রক্ষা করার দায়িত্ব সকলের।