শিশু কন্যা চুরির অভিযোগে ধৃত শিক্ষককে দুই দিন পুলিশ হেফাজতে রাখার নির্দেশ দিলো ঝাড়গ্রাম আদালত।

0
246

নিজস্ব সংবাদদাতা, ঝাড়গ্রাম:- সাড়ে তিন মাসের এক শিশু কন্যাকে চুরির অভিযোগে এক শিক্ষককে গ্রেপ্তার করল ঝাড়্গ্রাম থানার পুলিশ। শনিবার ঝাড়গ্রাম শহরের ১১ নম্বর ওয়ার্ডের নিচু ডোমপাড়া এলাকায় ঘটনাটি ঘটে। ধৃত শিক্ষকের নাম নেপাল চন্দ্র বর্মন। তার বয়স ৩১ বছর। তিনি ঝাড়গ্রাম ব্লকের সাপধরা অঞ্চলের পশ্চিম চক্রের গিরা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহ শিক্ষক। কর্মসূত্রে ওই শিক্ষক ঝাড়গ্রাম শহরের পুরাতন ঝাড়গ্রাম এলাকায় একটি বাড়িতে ভাড়া থাকতেন । তার বাড়ি পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার সবং থানার কসবা সবং এলাকায়। জানা গিয়েছে পুরাতন ঝাড়গ্রাম এলাকার নিচু ডোমপাড়া এলাকায় বসবাস করেন রেবতী মল্ল ও তার স্বামী শৈবাল মল্ল ।পেশায় দিনমজুর ওই দম্পতির দুটি মেয়ে। বড় মেয়ের নাম লাবনী , সাড়ে তিন মাসের ছোট মেয়ের নাম অর্জিতা। বাড়ির কিছুটা দুরে মিনু রায় নামে এক মহিলার বাড়িতে সাড়ে তিন মাসের অর্জিতা কে রেখে জঙ্গলে গিয়েছিল কাঠ আনতে রেবতী মল্ল। সেই সময় ওই শিক্ষক বাচ্চাটিকে নিয়ে পালিয়ে যাচ্ছিল। ঘণ্টাখানেক পর ওই ব্যক্তিকে শিশুকন্যাটি সহ দেড় কিলোমিটার দূরে টিয়াকাটি জঙ্গলে পাওয়া যায় । এলাকার বাসিন্দারা হাতেনাতে ওই ব্যক্তিকে শিশুসহ ধরে পুলিশের হাতে তুলে দেয়। শিশুকন্যাটিকে তার বাবা মায়ের হাতে তুলে দেওয়া হয়। পুলিশ শিশু কন্যা চুরির অভিযোগে শিক্ষক নেপাল চন্দ্র বর্মন কে গ্রেপ্তার করে। রবিবার ঝাড়গ্রাম আদালতে শিশু কন্যা চুরির অভিযোগে শিক্ষক নেপাল চন্দ্র বর্মন কে ঝাড়গ্রাম আদালতে তোলা হয় । ঝাড়গ্রাম আদালতের ভারপ্রাপ্ত বিচারক আদালতে দুই পক্ষের আইনজীবীদের বক্তব্য শোনার পর ধৃত শিক্ষককে দুইদিন পুলিশ হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেন ।কেন ওই শিক্ষক শিশু কন্যা টিকে চুরি করেছিল তা খতিয়ে দেখার জন্য অভিযুক্ত কে নিজেদের হেফাজতে নিয়ে ঝাড়গ্রাম থানার পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here