শেষ হল ক্যানিং স্পোর্টস্ কমপ্লেক্স ময়দানে ফুটবলের মহাযঞ্জ।

0
565

সুভাষ চন্দ্র দাশ,ক্যানিং:- এক বিশাল নকআউট ফুটবল খেলার মহাযঞ্জ টুর্ণামেন্ট শেষ হল। দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলার ক্যানিং এক নম্বর ব্লকের মাতলা ২নং ও ১নং গ্রাম পঞ্চায়েত আয়োজিত মিঠাখালী প্রতিলিপি সংঘের উদ্যোগে আটদলের এক নকআউট ফুটবল টুর্ণামেন্টে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্যদিয়ে অনুষ্ঠানিক সূচনা হয়েছিল গত ২৬ ডিসেম্বর ক্যানিং স্পোর্টস কমপ্লেক্স ময়দানে।ষষ্ঠ বর্ষের ফুটবল খেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেছিলেন ক্যানিং পূর্বের বিধায়ক সওকত মোল্লা।এবার সেই ফুটবল মহাযঞ্জ শেষ হল ২ ডিসেম্বর রবিবার সন্ধ্যায়। এদিনের ফুটবল টুর্ণামেন্টের ফাইনাল ম্যাচে “বৈশাখী চানাচুর একাদশ“  ”ক্যানিং অমীয় গিরি স্মৃতি একাদশ“ কে ২-০ গোলে পরাজিত করে টুর্ণামেন্ট চ্যাম্পিয়ান হয়। রানার্স হয় “ক্যানিং অমীয় গিরি স্মৃতি একাদশ“।
এদিন ফাইনাল খেলায় উপস্থিত ছিলেন ক্যানিংয়ের মহকুমা পুলিশ আধিকারীক দিবাকর দাস,মাতলা ২ নং গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান তথা টুর্ণামেন্ট কমিটির সভাপতি উত্তম দাস,টুর্ণামেন্ট কমিটির সম্পাদক সঞ্জয় বিশ্বাস,মিঠাখালি প্রতিলিপি সংঘের সম্পাদক তথা ক্যানিংয়ের বিধায়ক পরেশরাম দাস সহ অন্যান্য বিশিষ্টরা।

টুর্ণামেন্টে “চাঁদমনি দাস ও বিহারীলাল দাস স্মৃতি ট্রফি” একটি চারচাকা গাড়ি,নগদ দুলক্ষ টাকা ও একটি ভেটকি মাছ চ্যাম্পিয়ান দলের হাতে তুলে দেন টুর্ণামেন্ট কর্তৃপক্ষ। রানার্স দলকে একটি সুদৃশ্য ট্রফি,বাইক ও নগদ দুলক্ষ টাকা দেওয়া হয়।
ক্যানিং পশ্চিমের বিধায়ক পরেশরাম দাস জানান “মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রীর অনুপ্রেরণায় প্রত্যন্ত সুন্দরবনে ফুটবল খেলা কে প্রসার ও জনপ্রিয় করে তুলেতে আমাদের এই আয়োজন”।
ফাইনাল এই টুর্ণামেন্ট ঘিরে ক্যানিং স্পোর্টস কমপ্লেক্স ময়দানে প্রায় ত্রিশ হাজার উৎসায়ী ফুটবলপ্রেমী দর্শক খেলা উপভোগ করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here