দিনহাটায় বৃদ্ধ বাবা-মা এবং শিশুপুত্র সহ বিজেপি নেতাকে মারধরের অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে।

0
292

মনিরুল হক, কোচবিহার: এক বিজেপি নেতা ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের উপড়ে হামলা চালিয়ে মারধোর করার অভিযোগ উঠল তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে। শুধু তাই নয়, অভিযোগ হামলার সময় ওই বিজেপি নেতার দুমাসের শিশুকেও মারধোর করা হয়েছে। গতকাল রাতে দিনহাটা শহরের বোর্ডিং পাড়া এলাকায় ওই ঘটনা ঘটেছে। ওই বিজেপি নেতার নাম নাম মুন্না সাউ। তিনি বিজেপির যুব মোর্চার কোচবিহার জেলা কমিটির সদস্য।

অভিযোগ, রবিবার রাতে ডাক বাংলো পাড়া সংলগ্ন এলাকার একটি মন্দির থেকে বাড়ি ফিরছিলেন মুন্না সাউ। ফেরার পথে বোর্ডিং পাড়া ক্লাবের সামনে বেশ কিছু দুষ্কৃতী মুন্না সাউয়ের উপড়ে হামলা চালিয়ে মারধোর শুরু করে। খবর পেয়ে মুন্না সাউয়ের বাবা মা ঘটনাস্থলে পৌঁছালে তাঁদেরকেও মারধোর করা হয় বলে অভিযোগ। এক সময় গণ্ডগোল ওই বিজেপি নেতার বাড়ির সামনে চলে আসলে সেখানে তাঁর দুই মাসের শিশু পুত্রকেও আঘাত করা হয় বলে অভিযোগ। ওই শিশুর মাথায় আঘাত লেগেছে বলে অভিযোগ করা হয়েছে। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় ওই বিজেপি নাতা বাবা নারায়ন সাউকে দিনহাটা মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

বিজেপির যুব মোর্চার নেতা মুন্না সাউ অভিযোগ করে বলেন, ” তৃণমূল কংগ্রেসের দুষ্কৃতী বাহিনী আচমকাই আমার উপড়ে হামলা চালিয়ে মারধোর শুরু করে। আমার বৃদ্ধ বাবা-মা এমনকি আমার দুমাসের শিশু সন্তানকেও তাঁরা রেহাই দেয় নি। পুরসভা নির্বাচন ঘোষণা হয়েছে। তাই এলাকায় ভয়ের পরিবেষ সৃষ্টি করে বিরোধীদের ময়দান ছাড়া করার জন্য আমার উপড়ে এই হামলা।” তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব অবশ্য ওই হামলার অভিযোগ অস্বীকার করেছে। তাঁদের দাবি, তৃণমূল কংগ্রেসকে কালিমালিপ্ত করতেই এমন ভিত্তিহীন অভিযোগ করা হয়েছে।

২০১৯ এর লোকসভা ২০২১ এর বিধানসভা নির্বাচনে দিনহাটা পুরসভা এলাকায় বিজেপি ভালো ফল করেছে। কিন্তু পরবর্তীতে বিধানসভার উপনির্বাচনে ধরাশায়ী বিজেপি। উপ নির্বাচনে জয়ী হন তৃণমূল কংগ্রেসের উদয়ন গুহ।

সম্প্রতি উদয়ন বাবু ঘোষণা করেন আগামী পুরসভা নির্বাচনে দুইয়ের বেশী প্রার্থী দিতে পারবে না বিজেপি। এরপরেই এই ঘটনায় ক্ষুব্ধ বিজেপি নেতৃত্ব। তাঁদের দাবি, উদয়ন বাবুর হুমকির পরেও দিনহাটা পুরসভা নির্বাচনে বিজেপি প্রার্থী দেওয়ার প্রস্তুতি নেওয়াতেই তৃণমূলের দুষ্কৃতিরা এভাবে তাঁদের যুব নেতার উপড়ে আক্রমণ শানিয়েছে।