ষাটোর্ধ্ব প্রবীণ, স্বাস্থ্যকর্মী এবং পুলিশ প্রশাসন সহ বিভিন্ন ফ্রন্টলাইন ওয়ার্কার দের জন্য আজ থেকে শুরু হলো বুস্টার ডোজ, অনেকটাই দুশ্চিন্তামুক্ত জানালেন টিকা প্রাপকরা।

0
400

নদীয়া, নিজস্ব সংবাদদাতা:- কিছুদিন আগে জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দিতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী ব্যক্ত করেন, দুটি অভিনব অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের উপর তিনি আলোকপাত করতে চলেছেন যার মধ্যে 15 থেকে 18 বছর বয়সী ছাত্র-ছাত্রীদের ভ্যাক্সিনেশন যা ইতিমধ্যেই তেশরা জানুয়ারি থেকে শুরু হয়েছে চলছে প্রতিদিন। আর অন্যটি হলো ফ্রন্টলাইন ওয়ার্কার এবং ষাটোর্ধ্ব দের তৃতীয় ভ্যাকসিন হিসাবে বুস্টার ডোজ। স্বাস্থ্য দপ্তর সূত্রে জানা যায় যিনি যে ভ্যাকসিন নিয়ে থাকুক তৃতীয় ডোজ হিসেবে, সেই ভ্যাকসিন এর তৃতীয় বা বুষ্টার ডোজ নিতে পারবেন। এটি মূলত ইমিউনিটি বর্ধক একটি বিশেষ ব্যবস্থা। বিভিন্ন হাসপাতাল, স্বাস্থ্য কেন্দ্র, পুলিশ প্রশাসন যারা সরাসরি বিভিন্ন ভাবে মানুষের ভিড়ের মাঝে অথবা কাছাকাছি আসতে বাধ্য থাকেন তাদের সংক্রমণের সম্ভাবনা টা ততটাই বেশি থাকে। তাই এ ব্যবস্থার ফলে খুশি প্রবীণ থেকে ফ্রন্টলাইন ওয়ার্কার সকলেই। সূত্রের খবর অনুযায়ী জানা যায়, আগামীতে 60 বছরের নিচে সকলকেই দেওয়া হবে তবে, বিগত প্রথম এবং দ্বিতীয় ভ্যাকসিন দেওয়ার সময় গুরুত্ব বুঝে বিচক্ষণতার সাথে তালিকা প্রস্তুত করার মাধ্যমে। শান্তিপুর স্টেট জেনারেল হাসপাতালে এই রকম এক চিত্র ধরা পরল আমাদের ক্যামেরায়। সেখানে অ্যাম্বুলেন্স চালক, অফিসকর্মী, নার্স, ডাক্তার, কর্তব্যরত সিভিক ভলেন্টিয়ার সকলকেই আজ এই বুস্টার ডোজ দেওয়া হয়, আগামীতে ধাপে ধাপে অন্যান্য ফ্রন্টলাইন ওয়ার্কারদের ডেকে নেওয়া হবে বলে জানা যায় হাসপাতাল সূত্রে।