করোনায় প্রাণ কাড়লো উদীয়মান সাঁতারুর,এলাকায় শোক।

0
915

সুভাষ চন্দ্র দাশ,ক্যানিং – এবার করোনায় প্রাণ কাড়লো এক উদীয়মান ক্ষুঁদে সাঁতারুর। মৃতের নাম সুমিত দাস(১৩)।তাঁর বাড়ি তালদি এলাকায়। এমন ঘটনায় ক্যানিংয়ের তালদি এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।প্রতিভাবান সাঁতারুর আকস্মিক মৃত্যুতে গভীর ভাবে শোক প্রকাশ করেছেন আন্তর্জাতিক ওয়াটারপোলো খেলোয়াড় রবীন বলদে ও স্থানীয় উত্তর তালদি দক্ষিণ পাড়া মিলন সমিতির সম্পাদক চিত্তরঞ্জন বিশ্বাস ।স্থানীয় সুত্রে জানা গিয়েছে তালদি মোহনচাঁদ হাইস্কুলের অষ্টম শ্রেণীর ছাত্র সুমিত দাস গত ৬ জানুয়ারী আচমকা অসুস্থ হয়ে পড়ে।আন্তর্জাতিক ওয়াটার পোলো খ্যাতি সম্পন্ন খেলোয়াড় রবীন বলদে তাকে ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যায় চিকিৎসার জন্য।ওই দিনই তার শারীরিক পরীক্ষা নিরীক্ষার পর ধরা পড়ে হেপাটাইটিস-বি।ওই দিনই কলকাতার চিত্তরঞ্জন হাসপাতালে স্থানান্তরিত করেন চিকিৎসকরা। সেখানে চিকিৎসা চলছিল। এরই মাঝে করোনায় আক্রান্ত হয়ে পড়েন ক্ষুঁদে ওই সাঁতারু।চিকিৎসকদের সমস্ত প্রকার চিকিৎসা কে এড়িয়ে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে।রবিবার বিকাল ৩ টে নাগাদ মৃত্যু হয় তাঁর।পরিবার পরিজনদের কাছে আকস্মিক মৃত্যুর খবর পৌঁছালে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে।সন্তান হারিয়ে শোকে ভেঙে পড়েছেন ক্ষুঁদে সাঁতারুর বাবা রমেশ দাস ও মা মাধবী দেবী।
রবীন বাবু জানিয়ে ‘প্রথম দিন থেকেই সুমিত কে নিয়ে চিকিৎসকদের কাছে দৌড়ঝাঁপ করেছি। কিন্তু বাঁচাতে পারলাম না।নিজের হাতে গড়া রাজ্যস্তরে চ্যাম্পিয়ান ক্ষুঁদে সাঁতারু এভাবে অকালে ঝরে যাবে কল্পনাতে ও ভাবতে পারছি না।অসহায় পরিবারের পাশে রয়েছি। এছাড়াও রাজ্য সরকার যদি মুখ তুলে চায় তাহলে আগামী দিনে সুমিতের ভাইও সাঁতারে তালদি তথা দেশের মুখ উজ্জল করবে।’