ঝাড়গ্রাম জেলার সাঁকরাইল ব্লকের হাঁড়িভাঙ্গা এলাকায় দাঁতাল হাতির তাণ্ডব এলাকা জুড়ে আতঙ্ক।

0
329

নিজস্ব সংবাদদাতা, ঝাড়গ্রাম:- শনিবার সাতসকালে বনদপ্তরের খড়গপুর বন বিভাগের কলাইকুন্ডা রেঞ্জ এলাকার প্রায় ৩০ টি দাঁতাল হাতি আচমকা ঢুকে পড়ে ঝাড়গ্রাম জেলার সাঁকরাইল ব্লকের হাঁড়িভাঙ্গা এলাকায় । যার ফলে রীতিমতো আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে হাঁড়িভাঙ্গা সহ পার্শ্ববর্তী গ্রামগুলিতে। হাতির দল গ্রামে ঢুকে খাবারের সন্ধানে মাঠে যেমন দাপিয়ে বেড়াচ্ছে। তেমনি খাবারের সন্ধানে লোকালয়ে ঢোকার চেষ্টা করছে ।যার ফলে রীতিমতো আতঙ্কের মধ্যে রয়েছেন গ্রামবাসীরা। হাতির দল গ্রামে ঢুকে পড়ায় আতঙ্কিত গ্রামবাসীরা ফোন করে বিষয়টি বন দফতরকে জানান। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় বন দপ্তরের কর্মীরা। বন দফতরের পক্ষ থেকে ওই এলাকার গ্রামবাসীদের সতর্ক থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। হাতির দলকে কে উত্তপ্ত করতে নিষেধ করা হয়েছে। সেই সঙ্গে হাতির যাত্রা পথে বাধা দিতে নিষেধ করা হয়েছে ।বন দফতরের কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে হাতির দলের গতিবিধির ওপর নজরদারি শুরু করেছে ।তবে যেভাবে প্রকাশ্য দিবালোকে হাতির দল ওই এলাকায় ঢুকে তাণ্ডব শুরু করেছে, তাতে ব্যাপক ফসলের ও ঘর বাড়ির ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা করছেন এলাকার বাসিন্দারা ।ওই এলাকার বাসিন্দাদের যেমন ফসলের ক্ষতি করবে হাতির দল, তেমনি ঘরবাড়ির ক্ষতি করতে পারে বলে গ্রামবাসীরা আশংকা করছে। তাই যথেষ্ট আতঙ্কের মধ্যে রয়েছে হাঁড়িভাঙ্গা সহ পার্শ্ববর্তী গ্রামের বাসিন্দারা। সেই সঙ্গে যে ভাবে বাস রাস্তার উপর দিয়ে হাতির দল যাতায়াত করছে,তাতে ওই এলাকার রাস্তা দিয়ে যানবাহন চলাচল করতে সমস্যা দেখা দিয়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। এছাড়াও ঝাড়গ্রাম জেলার নয়াগ্রাম ব্লক জুড়ে প্রায় ৮০ টি দাঁতাল হাতি দাপিয়ে বেড়াচ্ছে।যার ফলে নয়াগ্রাম ব্লকের বিভিন্ন এলাকায় হাতির দল লোকালয়ে ঢুকে খাবারের সন্ধানে তাণ্ডব শুরু করেছে। তাই নয়াগ্রামের বিভিন্ন এলাকায় হাতির হামলায় ফসলের পাশাপাশি ঘরবাড়ির ক্ষতির ক্ষতির আশঙ্কা করছেন এলাকার বাসিন্দারা।বন দফতরের পক্ষ থেকে ওই এলাকার বাসিন্দাদের সতর্ক থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।