পৌর নির্বাচনকে সামনে রেখে প্রার্থী তালিকা নিয়ে বিক্ষোভ তৃণমূলের,ক্ষোভ পূর্ব মেদিনীপুরের তৃণমূল নেতাকর্মীরা।

0
327

নিজস্ব সংবাদদাতা,পূর্ব মেদিনীপুর:- তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা ঘিরে বিক্ষোভ তৃণমূলের কর্মী-সমর্থকদের। একদিকে যখন ভুয়ো তালিকা ঘিরে বিভ্রান্তি ছড়িয়েছে ঘাসফুল শিবিরে। অন্যদিকে, তালিকায় প্রার্থীদের নাম দেখে নির্বাচনি কমিটি থেকে পদত্যাগ করলেন খোদ মৎস্যমন্ত্রী অখিল গিরি , মূলত আগামী ২৭ ফেব্রুয়ারি ১০৮ পুরসভার ভোট, আর নির্বাচনকে সামনে রেখে পূর্ব মেদিনীপুরে একটি পাঁচ সদস্যের কমিটি গঠন হয়, সেই কমিটির আহ্বায়ক ছিলেন অখিল গিরি। কিন্তু এই দিন তালিকা দেখেই ক্ষুব্ধ হন তিনি। সুব্রত বক্সিকে ফোন করে কমিটি থেকে পদত্যাগ করার কথা জানান তিনি। তাঁর অভিযোগ, তাঁর বাছাই করা নাম বাদ দিয়ে সদ্য বিজেপি ছেড়ে আসা নেতাদের দেওয়া হয়েছে টিকিট। ‘দাদার অনুগামী’ বলে পরিচিত, ‘দাদার’ সঙ্গে যোগাযোগ রয়েছে এমন নেতাকেও টিকিট দেওয়া হয়েছে বলে তাঁর অভিযোগ। কয়েক ঘণ্টা হল তৃণমূলে এসেছেন, এমন নেতাকেও টিকিট!
যদিও এই দিন প্রথম যে প্রার্থী তালিকা জেলায় জেলায় পৌঁছয়, তা ভুয়ো বলে দাবি করে তৃণমূল। পরে আবারও তালিকা পাঠানো হয়। তবে প্রথম তালিকা প্রকাশ্যে আসতেই বাড়ে অশান্তি। সেই তালিকায় দেখা যায়, নাম রয়েছে অতনু গিরি, দিলীপ কুমার মাইতি ও তরুণ কুমার বেরার। ৭, ১০ ও ১১ নম্বর ওয়ার্ড থেকে টিকিট পেয়েছেন তাঁরা। অতনু ও তরুণ কয়েক দিন আগেই পদ্ম শিবির থেকে তৃণমূলে ফিরে ছিলেন। আর দিলীপ ফেরেন শুক্রবার সকালে এমনটাই জানা গিয়েছে বিশেষ সূত্রে। অতীতে জোড়াফুল শিবিরে ছিলেন এঁরা। পরে দলবদল করেন। তালিকা দেখেই মর্মাহত মন্ত্রী এই দিন যখন তাঁর বাড়ির সামনে বিক্ষোভ চলছে, তখন সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে মৎস্যমন্ত্রী অখিল গিরি জানান, তাঁর বাছাই করা নামে অনুমোদন মেলেনি। মন্ত্রীর অভিযোগ বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে যোগাযোগ রয়েছে এমন নেতার নামও রয়েছে তালিকায়। তিনি বলেন, ‘আমি যে তালিকা পাঠিয়েছি। সেই তালিকায় অনুমোদন দেয়নি। এখনও বিজেপিতে আছে এমন ১-২ জনের নাম এই তালিকায় আছে। দাদার অনুগামী হিসেবে যারা চিহ্নিত ছিল, এখনও যাদের দাদার সঙ্গে যোগাযোগ রয়েছে, তাঁরা এই প্রার্থী তালিকায় কী ভাবে জায়গা পেল আমি জানি না। আমি এই তালিকা দেখে মর্মাহত।’ তাই কমিটি থেকে পদত্যাগ করার কথা জানিয়েছেন তিনি।
টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ কর্মীদের
এই নাম গুলো প্রার্থী তালিকায় থাকায় শুরু হয় বিক্ষোভ। রাস্তায় নেমে, টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ দেখান তৃণমূল কর্মীরা। কাঁথিতে মৎস্যমন্ত্রী অখিল গিরির বাড়ির সামনে বিক্ষোভ দেখানো হয়। সূত্রের খবর, ওই কমিটিতে ছিলেন উত্তম বারিক। তাঁর হাত ধরে সদ্য বিজেপি ছেড়ে আসা বেশ কয়েক জন নেতা টিকিট পেয়েছেন বলে অভিযোগ। যাঁরা অখিল গিরির পছন্দের তালিকায় ছিলেন না। তাঁর পাঠানো নাম তালিকায় নেই বলেই দাবি মন্ত্রীর। আর সেই কারণেই ক্ষুব্ধ হন মন্ত্রী। তবে সংশোধিত তালিকায় এই নাম গুলো বাদ পড়েছে কি না, তা এখনও স্পষ্ট নয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here