মিঠুন বাগদী খুনের ঘটনায় আরও ৯ জনের নামে চার্জশিট দিল সিবিআই।

0
248

বীরভূম, সেখ ওলি মহম্মদঃ- বীরভূম জেলার দুবরাজপুর বিধানসভার খয়রাশোল ব্লকের কাঁকরতলার নবসন গ্রামের মিঠুন বাগদী খুনের মামলায় দুবরাজপুর আদালতে আজ আরও ৯ জনের নামে চার্জশিট জমা দিল সিবিআই। উল্লেখ্য, বিধানসভা ভোট পরবর্তী হিংসায় মোট ১৫ জনের নামে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছিল মিঠুন বাগদির পরিবারের পক্ষ থেকে। সিবিআই আগে ৫ জনের নামে চার্জশিট জমা দিয়েছিল। আজ আরও ৯ জনের নাম চার্জশিট জমা দিল সিবিআই। যদি তাঁদের মধ্যে কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে আবার কেউ নিজেই আত্মসমর্পণ করেছে। তাঁরা এখন প্রত্যেকেই সংশোধনাগারে রয়েছে। জানা যায়, খয়রাশোল ব্লকের কাঁকড়তলা থানার অন্তর্গত নবসন গ্রামে গত ২০২১ সালের ১২ জুন বিজেপির বুথ সহ-সভাপতি মিঠুন বাগদি খুনের ঘটনায় তদন্তভার নিয়েছিল সিবিআই। উল্লেখ্য, মিঠুন বাগদি খুনের ঘটনায় গত ২৮ শে আগস্ট ছয় সদস্যের সিবিআই প্রতিনিধি দল কাঁকরতলা থানার নবসন গ্রামে গিয়েছিলেন। কথা বলেছিলেন স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে এবং সংশ্লিষ্ট পুলিশ আধিকারিকদের সঙ্গে। ঘটনায় প্রকাশ, নবসন গ্রামে ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনের আগে মার্চ মাসে গ্রামেরই ১০০ মিটার দূরে রাজু বাগদি নামে এক যুবকের রক্তাক্ত দেহ উদ্ধার হয়। সেই খুনের ঘটনায় নাম জড়িয়ে পড়ে বিজেপির বুথ সহ-সভাপতি মিঠুন বাগদির। গ্রেফতার হওয়ার তিন মাসের মধ্যে আদালতের জামিনে ছাড়া পাওয়ার পর মিঠুন বাগদী নবসন গ্রামে ঢুকলে তাঁকে রড, বটি, কাটারি নিয়ে রাজুর পরিবার তার ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। আহত অবস্থায় মিঠুনের দেহ রাস্তায় পড়ে থাকলে পুলিশ এসে সেই দেহ উদ্ধার করে নাকড়াকোন্দা প্রথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন l
এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে জেলা বিজেপি সিবিআই তদন্তের দাবি জানায়। পুলিশ স্বতঃস্ফূর্তভাবে মামলা রুজু করলে পাঁচজনকে ঘটনার সঙ্গে যুক্ত থাকার অপরাধে গ্রেপ্তার করেছিল। কোর্টের নির্দেশে তদন্তভার হাতে তুলে নিয়ে আসরে কোমর বেঁধে নামে সিবিআই।