নয়াগ্রামের বিস্তীর্ণ এলাকায় দাপিয়ে বেড়াচ্ছে হাতির দল ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা।

0
235

নিজস্ব সংবাদদাতা, ঝাড়গ্রাম:- ঝাড়গ্রাম জেলা জুড়ে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে দলমার দাঁতালের দল। খাবারের সন্ধানে জঙ্গল থেকে বেরিয়ে লোকালয়ে ঢুকে হাতির দল ঝাড়গ্রাম জেলার নয়াগ্রাম ব্লকের বিস্তীর্ণ এলাকায় রাতভর দাপিয়ে বেড়াচ্ছে।হাতির তান্ডবে ফসলের ক্ষতি হচ্ছে তা নিয়ে যথেষ্ট চিন্তায় রয়েছে নয়াগ্রাম এলাকার চাষীরা।একদিকে যেমন হাতির পাল স্থানীয় জঙ্গল থেকে লোকালয়ে এসে চাষের জমির উপর তান্ডব করছে,সেইসঙ্গে ভাঙছে ঘরবাড়ি।অন্যদিকে তেমনই হাতির হামলায় প্রাণহানির ঘটনাও অব্যাহত রয়েছে।গত ৩০ শে জানুয়ারি ঝাড়গ্রাম জেলার নয়াগ্রাম ব্লকের রামচন্দ্রপুর গ্রামে হাতির হামলায় মৃত্যু হয় ইচ্ছামতি বেরা নামে এক ৬৫ বছরের বৃদ্ধার।গত বুধবার রাতে ১২ টি হাতির দল স্থানীয় জঙ্গল থেকে বেরিয়ে নয়াগ্রাম ব্লকের রামচন্দ্রপুর এলকায় বেশ কয়েকবিঘা চাষের জমির উপর তান্ডব চালায় ।যার ফলে ব্যাপক ক্ষতির মুখে পড়ে ওই এলাকার সবজি চাষীরা।ঝাড়গ্রাম জেলার নয়াগ্রাম ব্লকের রামচন্দ্রপুর, বাছুরখোয়াড়, তপোবন, থুরিয়া সহ বিভিন্ন এলাকায় প্রতিনিয়ত চলছে হাতির তান্ডব।হাতির তান্ডব নিয়ে রামচন্দ্রপুর এলাকার বাসিন্দারা জানান বন দপ্তরের কাছে আবেদন ওই হাতির পাল গুলিকে যদি হুলা পাটির সদস্যদের দিয়ে জঙ্গলের মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখা যায় ।তা না হলে হাতির হামলার ভয়ে সন্ধ্যা হলেই বাড়ি থেকে বেরোনো যাচ্ছে না। যার ফলে ওই এলাকার বাসিন্দাদের কার্যত সন্ধ্যার পর গৃহবন্দি অবস্থায় কাটাতে হয় । নয়াগ্রাম ব্লকের রামেশ্বর, তপোবন এলকায় প্রতিদিন দূরদূরান্ত থেকে বহু দর্শনার্থীদের সমাগম হয়। হাতির তাণ্ডবের ফলে রামেশ্বর মন্দিরে যাওয়া দর্শনার্থীদের মাঝেমধ্যে সমস্যায় পড়তে হয় ।ওই এলাকায় যেভাবে হাতির দল দাপিয়ে বেড়াচ্ছে তা নিয়েও যথেষ্ট চিন্তায় রয়েছেন ওই এলাকার বাসিন্দারা।কিছুদিন ধরে তপোবন এলাকায় দাপিয়ে বেড়াচ্ছে দলমার দাঁতাল।মাঝে মধ্যে জঙ্গল থেকে বেরিয়ে চলে আসছে রাস্তার উপর।যার ফলে ওই রাস্তার উপর দিয়ে প্রায় মাঝেমধ্যেই বেশ কিছুক্ষন বন্ধ থাকে যানবাহন চলাচল।যাতে ওই এলাকার লোকালয় থেকে হাতির পালকে অন্যত্র নিয়ে যাওয়া যায় তার জন্য বন দপ্তরের দৃষ্টি আকর্ষণের দাবি জানান এলাকাবাসী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here