কোচবিহারে বিজেপির ফ্ল্যাগ ফেস্টুন খুলে আবর্জনার স্তূপে ফেলে দেওয়ার অভিযোগ তৃণমূল- বামেদের বিরুদ্ধে, চাঞ্চল্য।

0
230

মনিরুল হক, কোচবিহারঃ বিজেপির ফ্ল্যাগ ফেস্টুন খুলে আবর্জনার মধ্যে ফেলে দেওয়ার অভিযোগ উঠল তৃণমূল ও বামফ্রন্টের বিরুদ্ধে। গতকাল রাতে কোচবিহার পুরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডের মান্টু দাস পল্লি এলাকায় বিজেপির ফ্ল্যাগ ফেস্টুন খুলে আবর্জনার স্তূপে ফেলে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। এরপরেই বিজেপির পক্ষ থেকে তৃণমূল ও বামফ্রন্টের বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলা হয়।
বিজেপির যুব মোর্চার নেতা অজয় সাহা অভিযোগ করে বলেন, “গতকাল রাতেই খবর পেয়েছি আমাদের ফ্ল্যাগ ফেস্টুন খুলে ফেলে দেওয়া হয়েছে। আমাদের ধারনা এরপিছনে তৃণমূল ও বামফ্রন্টের কর্মী সমর্থকরা জড়িত। আসলে এলাকার মানুষ বিজেপিকে চাইলেও ওই এলাকায় তৃণমূল বামেরা বিজেপিকে আটকাতে মরিয়া হয়ে নেমেছে। কিন্তু মানুষ ভোট দিতে পারলে ওই ওয়ার্ডে বিজেপি প্রার্থী সঞ্চিতা সাহাই জয়ী হবেন।”
এদিকে তৃণমূল ও বামফ্রন্টের প্রার্থীরা ওই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। বাম প্রার্থী লিপিকা বর্মণ বলেন, “আমরা এধরনের রাজনীতিতে বিশ্বাস করি না। আমাদের বাড়ির সামনে তৃণমূল ও বিজেপির পতাকা রয়েছে। তাতেও আমরা কন আপত্তি জানাই নি। এটা মিথ্যে অভিযোগ করা হয়েছে।” অন্যদিকে তৃণমূল প্রার্থী চন্দনা মহন্ত বলেন, “ বিজেপি এই ওয়ার্ডে প্রচারের কন লোক পাচ্ছে না। তাই ভিত্তিহীন অভিযোগ তুলে প্রচারে আসার চেষ্টা করছে। আমাদের পাশে মানুষ রয়েছেন, এসব করার কোন প্রয়োজন পড়বে না।”
কোচবিহার পুরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ড থেকে দীর্ঘদিন ধরেই বামেদের দখলে। এবার পুরসভা নির্বাচনের আগে ওই ওয়ার্ডে ফরওয়ার্ড ব্লক থেকে জয়ী হওয়া কাউন্সিলার চন্দনা মহন্ত দল বদল করে তৃণমূলে যোগ দেন। তাকেই এবার প্রার্থী করেছে জোড়া ফুল শিবির। প্রথম দিকে ওই প্রার্থী নিয়ে তৃনমূলের অন্দরে ক্ষোভ বিক্ষোভ থাকলেও পরবর্তীতে সেখানে তৃণমূল কর্মীরা প্রচারে ঝাঁপিয়ে পড়েছে। অন্যদিকে ওই ওয়ার্ডে এবার ফরওয়ার্ড ব্লক প্রার্থী করেছে লিপিকা বর্মণকে। রাজনৈতিক মহলের ধারনা ওই দুই প্রার্থীর মধ্যেই লড়াই হওয়ার সম্ভাবনা খুব বেশী। অন্যদিকে বিজেপি প্রার্থী সঞ্চিতা সাহা প্রচারে থাকলেও শেষ পর্যন্ত কতটা লড়াই দিতে পারেন, এখন সেটাই দেখার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here