প্রতি রাত্রে শিব মন্দিরেই বসে মদ গাঁজার আসর, পার্শ্ববর্তী এক বাড়িতে ডাকাতি, অপর এক বাড়ির মহিলাকে মৃত্যুর-হুমকি।

0
313

নদীয়া, নিজস্ব সংবাদদাতা:- শান্তিপুর থানা এলাকার বাইগাছি শিব মন্দিরে প্রতিরাতে আশেক মদ-গাঁজার আসর। অকথ্য গালিগালাজ হই হট্টগোলএ দীর্ঘদিন সহ্য করে আসছিলো প্রতিবেশীরা। গতকাল রাত এগারোটা নাগাদ মদ্যপানের পর মন্দিরের সংলগ্ন তারক ভট্টাচার্যের বাড়িতে টিন কেটে গ্রিল ভেঙে ঘরে ঢুকে আলমারি থেকে নগদ 54 হাজার টাকা এবং বেশকিছু সোনা রুপোর গহনা নিয়ে চম্পট দেয় তারা। তারক ভট্টাচার্যের মাতৃ বিয়োগ হয়েছে কিছুদিন আগে দিদির বিয়ে হয়েছে অনেক আগেই, তাই সে এবং তার বাবা রবীন্দ্র ভট্টাচার্য থাকেন ওই বাড়িতে। তারক বাবু পেশায় সুতোর ব্যবসায়ী। তিনি বলেন গতকাল, একটি ঘরে তার বাবা শুয়ে ছিলেন, হঠাৎই বেশ কয়েকটা থান ইট এসে পড়ে তার গায়ে। এরপর চেঁচামেচি করলেও অনেকেই এগোতে সাহস পায় না, মদ্যপ এবং সশস্ত্র চার যুবকের রণচণ্ডী মূর্তি দেখে। বৃদ্ধ বাবা বাধা দিতে গেলে তাকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেওয়া হয়। ব্যাবসায়িক 54,000 টাকা এবং বেশ কয়েক ভরি সোনা রুপোর গহনা নিয়ে চম্পট দেয় তারা। পরিবারের পক্ষ থেকে শান্তিপুর থানায় ফোন করলে পুলিশ প্রশাসন এসে খতিয়ে দেখে যায় গতকাল রাতেই। আজ এলাকারই ওই চার মদ্যপ যুবকের বিরুদ্ধে, শান্তিপুর থানায় লিখিত অভিযোগ জানান তারক বাবু।
প্রতিবেশী মঞ্জু দেবনাথ জানান, অসহনীয় অত্যাচারের কথা স্থানীয় ক্লাবের জানিয়েও কোন ফল মেলেনি।
অপর এক প্রতিবেশী ছাত্রী চুমকি দেবনাথ বলেন, প্রতিবাদ করার কারণে এর আগে ওই চারজন যুবক তাকে মৃত্যু হুমকি দেয়।
পাড়ার ক্লাবের সভাপতি পরিমল দেবনাথ জানান, তারা ক্লাবের সঙ্গে যুক্ত নয় তবে প্রশাসনের কাছে দোষীদের শাস্তির দাবী জানাই। পাড়া গত ভাবেও ওদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here