সোমবার সকালে হরিশ্চন্দ্রপুর থানা এলাকার ভালুকা গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার একটি কালভার্টের নিচ থেকে উদ্ধার হলো এক সদ্যোজাত শিশু কন্যা।

0
318

নিজস্ব সংবাদদাতা, মালদাঃ-সোমবার সকালে হরিশ্চন্দ্রপুর থানা এলাকার ভালুকা গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার একটি কালভার্টের নিচ থেকে উদ্ধার হলো এক সদ্যোজাত শিশু কন্যা। কালভার্টের নিচ থেকে শিশুকন্যা উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়ালো ভালুকা এলাকাজুড়ে। শিশুটিকে এক ফেরিওয়ালা উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যায়। সমস্ত ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে ভালুকা ফাঁড়ির পুলিশ আধিকারিকরা।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায় আজ সকাল বেলায় এলাকারই এক ফেরিওয়ালা ভালুকা থেকে পেমাই যাওয়ার পথে ওই সড়কে একটি কালভার্টের নিচে শিশুকন্যার কান্নার আওয়াজ শুনতে পান। কালভার্টের নিচে গিয়ে দেখতে পান এক সদ্যজাত শিশু কন্যা ব্রিজের তলায় পড়ে রয়েছে। সেই ফেরিওয়ালা দেরি না করে শিশুটিকে নিয়ে থানায় পৌঁছে যান। পুলিশ আধিকারিকদের উদ্যোগে শিশুটিকে স্থানীয় ভালুকা প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করা হয়। সেখানে শিশুটির স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়েছে। কে বা কারা ঐ বাচ্চাটাকে ফেলে গিয়েছে সমস্ত বিষয় খতিয়ে দেখছে ভালুকা ফাঁড়ির পুলিশ।
উদ্ধারকারী ফেরিওয়ালা জানিয়েছেন তিনি ওই শিশুকন্যাটিকে দত্তক নিতে প্রস্তুত। তার চার ছেলে রয়েছে কোন মেয়ে নেই। তাই তিনি এই শিশুকন্যাটিকে তার বাড়িতে নিয়ে যেতে চান।
ভালুকা ফাঁড়ির এএসআই মোঃ তোফাজ্জল হোসেন জানান এলাকার একটি কালভার্টের নিচ থেকে ওই বাচ্চাটিকে উদ্ধার করা হয়েছে এখন হাসপাতালে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হচ্ছে। আমরা সমস্ত দিক খতিয়ে দেখছি কিভাবে বাচ্চাটি ওখানে এল। এ বিষয়ে আমি হরিশ্চন্দ্রপুর থানাতে রিপোর্ট করা হয়েছে।
সকাল সকাল সদ্যজাত শিশু কন্যা উদ্ধার হয় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে ভালুকা এলাকাজুড়ে।