এন আর জি এস প্রকল্পের ৫ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ তুলে তদন্তের দাবিতে বৃহস্পতিবার বিকালে বিক্ষোভ দেখালেন কংগ্রেসের নেতা কর্মীরা।

0
262

নিজস্ব সংবাদদাতা, মালদাঃ- তৃনমূল পরিচালিত পঞ্চায়েতের প্রধান,উপ-প্রধান ও পঞ্চায়েতের কর্মীদের বিরুদ্ধে এন আর জি এস প্রকল্পের ৫ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ তুলে তদন্তের দাবিতে বৃহস্পতিবার বিকালে বিক্ষোভ দেখালেন কংগ্রেসের নেতা কর্মীরা।

অভিযোগ উঠেছে হরিশ্চন্দ্রপুর-২ নং ব্লকের তৃনমূল পরিচালিত মশালদহ গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান নিলুফার ইয়াসমিন,উপ প্রধান মহম্মদ ইসমাইল, নির্মাণ সহায়ক রাধে শ্যাম বর্মন,এসটিপি সুব্রত পোদ্দার ও সেক্রেটারি শশাঙ্ক উপাধ্যায় সহ আরো অন্যান্য পঞ্চায়েত কর্মীদের বিরুদ্ধে।যদিও প্রধানের স্বামী আবু সুফিয়ান তাদের বিরুদ্ধে উঠা অভিযোগ একেবারে ভিত্তিহীন বলে দাবি করেছেন।

কংগ্রেসের অভিযোগ,মশালদহ গ্রাম পঞ্চায়েতের
প্রধান ও উপ-প্রধান সহ পঞ্চায়েত কর্মীদের বিরুদ্ধে সরকারি টাকা তছরুপের ভুরিভুরি অভিযোগ রয়েছে।এন আর জি এস প্রকল্পে মাটি কাটা,পুকুর খনন,নতুন রাস্তা নির্মাণ,টেন্ডার পাস,বৃক্ষরোপণ ও হর্টিকালচারের নামে সরকারি কোটি কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছে।উঁচু চাষের জমিকে জেসিবি মেসিন দিয়ে সমতল করে নতুন পুকুর খননের স্কিম বোর্ড লাগিয়ে ভুয়ো মাস্টার রোল বানিয়ে লক্ষ লক্ষ টাকা তুলে নিয়েছে।সরজমিনে গিয়েও দেখা যায়নি কোনো স্কিমের বোর্ড।

এই নিয়ে তাদের বিরুদ্ধে স্থানীয় ব্লক প্রশাসন থেকে শুরু করে কেন্দ্র পর্যন্ত লিখিত অভিযোগ জানানো হয়েছে। দিল্লি প্রধানমন্ত্রী দপ্তর থেকে চিঠি দিয়ে রাজ্য সরকারের চিফ সেক্রেটারিকে তদন্তের নির্দেশ দিলেও এখনো পর্যন্ত কোনো সরকারি আধিকারিক তদন্তে আসেনি বলে অভিযোগ। এমনকি রাজ্যের পঞ্চায়েত অ্যান্ড রুরাল ডেভেলপমেন্ট ডিপার্টমেন্ট থেকেও চিঠি দিয়ে তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে ডিস্ট্রিক্ট ম্যাজিস্ট্রেট অ্যান্ড ডিস্ট্রিক্ট প্রোগ্রাম কো-অর্ডিনেটরকেও।তাই
তদন্তের দাবিতে এদিন বিক্ষোভ দেখালেন কংগ্রেসের নেতা কর্মীরা।সরকারি পক্ষ থেকে নিরপেক্ষভাবে এর তদন্ত না হলে পরবর্তী সময়ে বড় ধরনের আন্দোলনে নামবেন বলে হুঁশিয়ারি দেন কংগ্রেস।

হরিশ্চন্দ্রপুর-২ নং ব্লকের বিডিও বিজয় গিরি জানান,প্রশাসনের তরফে অভিযোগ খতিয়ে দেখা হচ্ছে। অনিয়ম হলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।