তোর্ষার জল বৃদ্ধি পাওয়ায় আতঙ্কিত চরবাসী, প্রশাসনের উদ্যোগে বাসিন্দাদের সরানো হল নিরাপদ স্থানে।

0
243

মনিরুল হক, কোচবিহারঃ ১০দিনের লাগাতার বৃষ্টিতে বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হয় কোচবিহারে তোর্ষায়। পাশাপাশি হলুদ সর্তকতা জারি করা হয়েছে উত্তরের রায়ডাক, কালজানি- ১, তোর্ষা এবং মানসাই নদীতে। গতকালের যে পরিস্থিতি ছিল তার থেকে অনেকটাই ভিন্ন পরিস্থিতি কোচবিহারে তোর্ষা নদীতে। যত বেলা বাড়ছে জল স্তর ধীরে ধীরে বৃদ্ধি পাচ্ছে কোচবিহারে তোর্ষা নদীতে। যদিও কাল রাতে মাঝারি বৃষ্টিতে নদীর জল অনেকটা বেড়ে গিয়েছে কোচবিহারের ফাঁসিরঘাট। কিন্তু শনিবার সকাল থেকে এখন পর্যন্ত বৃষ্টি ছিল না,আকাশ পরিষ্কার দেখা যাচ্ছে। তবুও প্রশাসন থেকে বারে বারে স্থানীয়দের সজাগ করা হচ্ছে এবং বাঁধের পাড়ের লোকজনকে অন্যত্রে সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে।
এদিন ওই জলমগ্ন বিস্তীর্ণ এলাকা পরিদর্শনে যান কোচবিহার সদর মহকুমার শাসক শেখ রফিকুল রহমান, কোচবিহার জেলা ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি অভিজিৎ দেবনাথ এবং কোচবিহার কোতোয়ালি থানার আইসি অমিতাভ দাস সহ অন্যান্যরা।
জানা গেছে, ফাঁসিরঘাট পার সংলগ্ন এলাকায় প্রশাসনের পক্ষ থেকে মাইকিং-এর মাধ্যমে সজাগ করে দেওয়া হচ্ছে, আগামী কয়েকদিন জলস্তর বৃদ্ধি পেতে পারে তাই তাদেরকে অন্যত্রে বা সড়ে আসার জন্য বলা হচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে কোচবিহারের ৩টি স্কুল সুনীতি, সদর গভঃমেন্ট এবং হিন্দি স্কুলে সংশ্লিষ্ট এলাকার বাসিন্দাদের থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এর পাশাপাশি আগামী দিনে ত্রিপল এবং শুকনা খাবারের ব্যবস্থা করা হবে বাজার সংলগ্ন এলাকার বাসিন্দাদের জন্য।
এদিন কোচবিহার সদর মহকুমার শাসক শেখ রফিকুল রহমান বলেন, আমরা সকালের দিকে পর্যবেক্ষণ করেছিলাম, এখন আকাশ পরিস্কার থাকায় জলের স্তর অনেকটা নেমে গেছে, আশা করা যাচ্ছে আবার বৃষ্টি না হলে এই জলস্তর আরও নামবে। ইতিমধ্যে বাঁধের উপর আশ্রয় নেওয়া মানুষদের একাংশকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।