স্বামীর সম্পতি থেকে বঞ্চিত করার অভিযোগ উঠলো দেওর ও তার দুই ভাইপোর বিরুদ্ধে।

0
193

নিজস্ব সংবাদদাতা, মালদাঃ- স্বামীর সম্পতি থেকে বঞ্চিত করার অভিযোগ উঠলো দেওর ও তার দুই ভাইপোর বিরুদ্ধে।অভিযোক করেছেনে এক বিধবা বৃদ্ধা।মালদহের চাঁচল থানার মল্লিকপাড়ার ঘটনা।ওই বিধবা ইতিমধ্যে চাঁচল থানায় দেওর ও তার দুই ভাইপোর বিরুদ্ধে মারধর ও জমি দখলের অভিযোগ দায়ের করেছেন।

চাঁচলের দক্ষিনপাকা মল্লিকপাড়ার বাসিন্দা ওই বিধবার নাম কুন্তি প্রামানিক।অভিযোগ,স্বামীর নামে রিজেস্ট্রীকৃত ও রেকর্ড ভুক্ত বাস্তভিটের জায়গাটি ভাগ বন্টন না করেই পাকা ঘর নির্মাণ করছে তার দেওর।বহিরাগত গুন্ডাবাহিনীর সাহায্য নিয়ে ওই বাস্ত ভিটাতে পাকা ঘর নির্মাণের অভিযোগ তুলেছেন ওই বৃদ্ধা।তিনি আরোও অভিযোগ করেছেন,নিখরাইল মৌজার ৭৮ নং দাগটিতে যে জায়গাটি রয়েছে,সেই জায়গাটির অংশীদার তার স্বামীও বলে দাবী।স্বামীর মৃত‍্যুর পর বর্তমানে ওই বৃদ্ধা ও তার দুই ছেলে ওই জমির অংশীদার।কিন্তু তা সত‍্যেও জোরপূর্বক ভাবে ভাগ বন্টন না করে পাকা বাড়ি দিচ্ছে তার দেওর অতুল প্রামানিক।ওই বৃদ্ধার আরোও অভিযোগ,ওই জমির এককোনে তাকে কোনোরকমে মাথা গোঁজার এক টুকরো অংশ মৌখিক ভাবে দেওয়া হয়েছে।এবং যে অংশ দেওয়া হয়েছে,সেটির কোনো নিজস্ব রাস্তা নেই।অন‍্যের জায়গা দিয়ে যেতে হয়।এদিন অবৈধ নির্মাণকাজে বাধা দিতে গেলে তাকে বেধড়ক মারধর করে তার দেওর ও তার দুই ভাইপো।মারধরের জেরে তিনি গুরুতর জখম অবস্থায় চাঁচল সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে দিন কয়েক চিকিৎসাধী ছিলেন।এই মর্মে তিনি একটি লিখিত অভিযোগও দায়ের করেন।পুলিশ অবশ‍্য জানিয়েছে,অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।অন‍্যদিকে তার দেওর অতুল প্রামানিক জমি দখল ও মারধরের কথা অস্বীকার করেছেন।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে,বর্তমানে ওই বৃদ্ধার এক ছেলে ভিনরাজ‍্যে নির্মাণ শ্রমিকের কাজে কর্মরত।
আরেক প্রতিবন্ধী ছেলে কৃষ্ণ প্রামাণিককে নিয়ে কুড়েঘরে অসহায় অবস্থায় দিন গুজরান করছেন।পুলিশ কতদিনে ব‍্যবস্থা নেই,সেদিকেই তাকিয়ে রয়েছেন অসহায় ওই বৃদ্ধা মহিলা।