পশ্চিবঙ্গের বৃহত্তম কবিতা উৎসব ২০২৩ উদ্বোধন করলেন ব্রাত্য বসু কবিতা পাঠ করলেন কবি ফারুক আহমেদ।

0
899

কলকাতা, নিজস্ব সংবাদদাতা:- বুধবার রবীন্দ্র সদন একতারা মঞ্চে, মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্যোগে, পশ্চিমবঙ্গ সরকারের তথ্য ও সংস্কৃতি বিভাগের অন্তর্গত কবিতা আকাদেমির আয়োজনে ৭ম কবিতা উৎসব ২০২৩-এর শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠান দাগ কেটেছে।
বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্যোগে ভারতের বৃহত্তম কবিতা উৎসবের শুভ উদ্বোধন করলেন উচ্চশিক্ষা এবং বিদ্যালয় শিক্ষা বিভাগের মন্ত্রী তথা পশ্চিমবঙ্গ বাংলা আকাদেমির সভাপতি শ্রী ব্রাত্য বসু, উপস্থিত ছিলেন সভামুখ্য সুবোধ সরকার, মাননীয় সভাপতি, পশ্চিমবঙ্গ কবিতা আকাদেমি, মন্ত্রী ইন্দ্রনীল সেন, আলাপন বন্দ্যেপাধ্যায়, ব্রততী বন্দ্যেপাধ্যায়, প্রণতি ঠাকুর, কৌশিক বসাক প্রমুখ। রবীন্দ্রসদন, শিশির মঞ্চ, বাংলা আকাদেমি সভাগৃহ, জীবনানন্দ সভাঘর, অবনীন্দ্র সভাঘর, নন্দন-৩, চারুকলা পর্ষদ সংলগ্ন প্রাঙ্গণ ও একতারা মুক্তমঞ্চে উৎসব শুরু হয়েছে। ৩ মে থেকে চলবে ৬ মে ২০২৩ পর্যন্ত।

ভারতের বৃহত্তম কবিতা উৎসবে দ্বিতীয় দিনেই শিশির মঞ্চে কবিতা পাঠ করলেন কবি ও উদার আকাশ পত্রিকার সম্পাদক ফারুক আহমেদ সহ বেশ কয়েকজন বিশিষ্ট কবি। এদিন ৪ মে শিশির মঞ্চে কবিতা পাঠ করেন কবি মঞ্জুভাষ মিত্র, আবদুর রব খান, শিবাশিস মুখোপাধ্যায়, তারেক কাজী, তন্ময় চক্রবর্তী, অয়ন চৌধুরী, গৌতম মণ্ডল, প্রণবকুমার চট্টোপাধ্যায়, ঋজুরেখ চক্রবর্তী প্রমুখ।

৩ মে ২০২৩ বাংলা ভাষার সব থেকে বড়ো কবিতা উৎসব উদ্বোধন মঞ্চ ভরে উঠে বিশিষ্ট কবি, সাহিত্যিক এবং আবৃত্তিকারদের উপস্থিতিতে। সমগ্র অনুষ্ঠানটির সভাপতিত্ব করলেন কবি সুবোধ সরকার, সভাপতি পশ্চিমবঙ্গ কবিতা আকাদেমি।

কবি ফারুক আহমেদ সহ বহু কবিকে পশ্চিমবঙ্গ কবিতা আকাদেমির পক্ষ থেকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। কবিতা উৎসবে কবিতা পাঠ করার জন্য।

৫ মে চারুকলা সংলগ্ন মঞ্চে আবৃত্তিতে রয়েছেন এই সময়ের মান্য আবৃত্তিশিল্পী আবৃত্তিওয়ালা ড. পিনাকী চট্টোপাধ্যায়। এই দিন আবৃত্তিওয়ালা ড. পিনাকীর নির্বাচনে দুই বাংলার বিশিষ্ট কবিদের কবিতা। কবিতা উৎসবের এই মঞ্চ সেদিন পিনাকীর উদাত্ত কণ্ঠের নিবেদনে মুখর হবে।

পশ্চিমবঙ্গ সরকারি উদ্যোগে আয়োজিত এই মহা কবিতা উৎসব ও সাংস্কৃতিক মিলনট
প্রয়াসের আয়োজনে কবিতা পাঠের জন্য কবি ফারুক আহমেদকে লিখিত আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন, পশ্চিমবঙ্গ সরকারের পক্ষ থেকে পশ্চিমবঙ্গ কবিতা আকাদেমি তথ্য ও সংস্কৃতি বিভাগ-এর দায়িত্বপ্রাপ্ত সদস্য সচিব।

কবি ও সম্পাদক ফারুক আহমেদ এক বিবৃতি দিয়ে সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন, সরাকারি উদ্যোগে সাংস্কৃতিক উৎসবে কবিতা পাঠের জন্য আমন্ত্রণ পেয়ে তিনি মুগ্ধ হয়েছেন। তাঁকে আমন্ত্রণ জানানোর জন্য তিনি কৃতজ্ঞ সরকারের কাছে। সরকারি উদ্যোগে ভারতের বৃহত্তর কবিতা উৎসব সার্বিকভাবে সফল করতে কবি সুবোধ সরকার-এর ঐকান্তিক প্রচেষ্টাকে আন্তরিক ধন্যবাদ। পশ্চিমবঙ্গ কবিতা আকাদেমি, তথ্য ও সংস্কৃতি বিভাগ, পশ্চিমবঙ্গ সরকারের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যাকেও কুর্নিশ জানিয়েছেন, কবি ফারুক আহমেদ।

কবি সুবোধ সরকার তাঁর ফেসবুকে লিখেছেন “উদ্বোধন ও সম্মাননা জ্ঞাপন। রবীন্দ্র সদন প্রাঙ্গনে একতারা মঞ্চে।সন্ধ্যা ছটায়। সম্মাননা পেলেন কবি সুধেন্দু মল্লিক, নির্মল হালদার, পায়েল সেনগুপ্ত, সোহেল ইসলাম। বাচিক শিল্পী, মুরারী মোহন চক্রবর্তী, সুদীপ্তা বন্দ্যোপাধ্যায়, সাম্য কার্ফা।
সাড়ে ছশ অংশগ্রহণকারী। আটটি মঞ্চ। চাঁদের হাট। চারদিন। নতুনরা অনেকে ডাক পেয়েছেন। উত্তরোত্তর আরও পাবেন। আর একটি কথা, কবিতা আকাদেমির সম্মাননীয় সদস্যরা এবার কবিতা পড়ছেন না। অর্থাৎ আমরা পড়ছি না। আমাদের জায়গায় নতুনরা পড়ছেন। আসুন, দেখা হবে।”