রাতে পুজোকে কেন্দ্র করে শুক্রবার সকাল থেকে লক্ষ লক্ষ পূর্ণার্থীর সমাগম শুরু হয়েছে বোল্লায়।

0
797

দঃ দিনাজপুর, নিজস্ব সংবাদদাতাঃ- রাতে পুজোকে কেন্দ্র করে শুক্রবার সকাল থেকে লক্ষ লক্ষ পূর্ণার্থীর সমাগম শুরু হয়েছে বোল্লায়। পরিবার পরিজন নিয়ে সবাই আশ্রয় নিয়েছেন মেলা চত্বরে। পুজো দেওয়ার পাশাপাশি মানত দিতেই সকাল থেকে ভিড় জমাচ্ছেন তারা। দূর দূরান্ত থেকে কেউ তিনবার তো কেউ একাধিকবার বোল্লা এসেছেন। সকলের বিশ্বাস মায়ের কাছে মন থেকে কিছু চাইলে বিফল হয়না। সকলের মনবাসনা তো বটেই অসুখ বিসুখের ক্ষেত্রে সুফল মিলেছে।

প্রসঙ্গত, রাসের পরেই উত্তরবঙ্গে বিখ্যাত দক্ষিন দিনাজপুর জেলার বোল্লা এলাকার সাড়ে সাত হাত উচ্চতার রক্ষা কালি পুজোটি। চারশো বছরের প্রাচীন এই কালি পুজোর পাশাপাশি তিনদিনের মেলা অনুষ্ঠিত হয়। পুজোর সারাদিন তো বটেই, রাতভর কয়েকলক্ষ ভক্ত বা পূর্ণার্থীদের সমাগম হয়। যার ব্যতিক্রম হচ্ছেনা এবারও। পুজোর প্রধান ভোগ খাজা, বাতাসা তৈরি হচ্ছে ক্যুইন্টাল ক্যুইন্টাল। সেখানেই পূর্ণার্থীদের মানত করা অন্তত ৩ হাজার পাঠা বলি হয় প্রতিবার। পুজোকে ঘিরে তৎপর থাকে পুলিশ ও প্রশাসন। নিরাপত্তায় শতাধিক সিসি ক্যামেরা, ওয়াচ টাওয়ার বসে। মোতায়েন থাকে অন্তত ২ হাজার পুলিশ ও নিরাপত্তা কর্মী। সেই পুজোকে নিয়েই মুখিয়ে থাকেন পূর্ণার্থী ও সাধারণ মানুষজন। এই পুজোর কোনো তিথি নেই। রাস পূর্নিমার পরের শুক্রবার বোল্লা কালি পুজো হয়ে থাকে প্রাচীন কাল থেকেই। রাজ্য তো বটেই, ভিন রাজ্য ও প্রতিবেশী দেশ থেকেও পূর্ণাথীরা এখানে পুজো দিতে আসেন।