মহিষাদল থানার মানবিক উদ্যোগ।

0
737

নিজস্ব সংবাদদাতা, পূর্ব মেদিনীপুর:- পূর্ব মেদিনীপুর জেলার মহিষাদলের থানার ইটামগর ১ গ্রাম পঞ্চায়েতের কাঞ্চনপুর গ্রামে এক বাড়িতে থাকতো এক ভিক্ষুক মা এবং তার ছোট্ট চতুর্থ শ্রেণীতে পড়া মেয়ে। কিন্তু কারণবশত ইলেকট্রিক এর শর্টসার্কিট হয়ে আগুনে তার বাড়িটি পুড়ে ভষ্মিভূত হয়ে যায়। পরিবারের তরফ থেকে সেই খবর জানায় মহিষাদল থানার পুলিশ আধিকারিকদের । মহিষাদল থানার ওসি পার্থ বিশ্বাস লকডাউনের কঠিন সময়ে শঙ্করী পন্ডার হাতে যাবতীয় খাদ্য সামগ্রী তুলে দেন। শঙ্করী স্বামী পরিত্যাক্তা, ভিক্ষা করেই জীবন যাপন চালাত মা ও মেয়ে। শঙ্করী পন্ডাকে পঞ্চায়েত সমিতি ও গ্রাম পঞ্চায়েতের তরফ থেকে বেশ কিছু সামগ্রী দিয়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু থাকবে কোথায়? তা নিয়ে দুঃশ্চিন্তায় ছিল মা ও মে। গ্রামের এর বাড়ি ওর বাড়ি কাটছিল তাদের রাত। কিন্তু তাও বা কতদিন? এরপর ভিক্ষুক মা ও মেয়ের দুর্দশার খবর জানতে পারেন মহিষাদল থানার পুলিশ। সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলেন মহিষাদল থানার ওসি পার্থ বিশ্বাস। তাদের সঙ্গে দেখা করে যাবতীয় সাহায্য ও দ্রুত বাড়ি তৈরি কোরে দেন। এছাড়াও ঐ ছাত্রীর পুড়ে যাওয়া বই, খাতা সহ যাবতীয় সামগ্রী তুলে দেন তার হাতে। পুলিশের এই ধরনের উদ‍্যোগে খুশি সকলে। মা ও মেয়ে জানান, “আমরা খুবই খুশি। ওনার যেভাবে আমাদের সহযোগিতা করলেন তা ভুলতে পারবো না।বুধবার এই বাড়িটি উদ্বোধন করেন মহিষাদল থানার ওসি, সিআই, এবং অ্যাডিশনাল এসপি। মহিষাদল থানার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে “আমরা সবসময় সাধারণ মানুষের পাশে রয়েছি।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here