বড় পর্দার জন্য ছবি তৈরি করলেন অভিনেতা পরিচালক কুমার চৌধুরী।

0
914

কলকাতা, শতাব্দী মজুমদারঃ-এ কাহিনী দুটো আলাদা দেশের দুটো মানুষের।দেওয়ালে পিঠ ঠেকে যাওয়া জ্বলন্ত সময়ের দলিল “প্রিয় চিনার পাতা,ইতি সেগুন…”।

মেয়েটি রোহিঙ্গা,মায়ানমার থেকে বিতাড়িত হয়ে ভারতে ঢুকতে গিয়ে বর্ডারে ধরা পড়ে।কলকাতার এক অনাথ আশ্রমের ঘরে বসে চিঠি লেখে দেশে থেকে যাওয়া নানিকে।ছেলেটি কাশ্মীরি ,মেয়েটির হারিয়ে যাওয়া পরিবারকে সে খুঁজতে থাকে আর এভাবেই কাহিনী এগোতে থাকে।

অভিনেতা ও পরিচালক কুমার চৌধুরী বড় পর্দার জন্য তৈরি করলেন তাঁর প্রথম পূর্ন দৈর্ঘ্যের ছবি আর্ক ফিল্মস নিবেদিত “প্রিয় চিনার পাতা ,ইতি সেগুন…”।ছবিটি তৈরি করতে সেই অর্থে কোনো প্রযোজক সংস্থা এগিয়ে না এলেও পরিচালকের স্ত্রী পিয়ালী চৌধুরী গয়না বিক্রি করে ও ব্যক্তিগত লোন নিয়ে ছবিটি প্রযোজনা করেন।বন্ধু বিশ্বজিৎ ঘোষও ছবিটি তৈরি করতে বিশেষ ভূমিকা নেন।

“প্রিয় চিনার ,পাতা ইতি সেগুন…”এ বছর কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের প্রতিযোগিতা মূলক বিভাগে মনোনীত হয়েছে।এছাড়া জয়পুরে kiffi তে, দিল্লিতে ডায়োরামা ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে, আমেরিকায় ফার্স্টটাইম ফিল্মমেকার সেশন ও লিফ্টঅফ গ্লোবাল নেটওয়ার্ক ফেস্টিভ্যালে মনোনীত হয়েছে।

আগামী জানুয়ারিতে কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচিত্র উৎসবে ছবিটি দেখানো হবে এছাড়া আগামী বছরে প্রেক্ষাগৃহেও মুক্তি পাবে ছবিটি ।