নিমাই জানা র তিনটি কবিতা।

0
353

নেলপালিশ

গভীর রাতের নক্ষত্রের জন্য কেউ কেউ পাগল
যাদের নখের ভেতর কালো নেলপালিশ থাকে, তারা জন্ম ক্ষুধার্ত
চোখের তলার ভাঁজে সে বড় একাকী
মুখ উপুড় করে আছে স্টেনলেস স্টিল , নরম ভাতের ফ্যান
কেঁচোর মতো এগিয়ে চলি নিরালার উর্বরতায়
সবুজ ফসল আমার পিঠে , বিপ্লবের জন্য
আমার শরীরেও অজস্র আঁতুড় গন্ধ লেগে আছে

জড়ুল দাগ

অসংখ্য জড়ুল তালপাতায় ঘরে
চোখ বিস্বাদ বোঝে পাগলের মত
সরু নিডলের তীব্র সায়ানাইড খায় অদ্ভুত রাখাল, কৃষ্ণকায় শরীর
গোধূলি বেলায় ঢুকে যাচ্ছে মাটির কোঠরে
সরু সরু পাতার নিচে বাল্মীকি জমা করছে গ্রন্থপোকা , নরম ঘাসেরা গজিয়ে ওঠে দেহে
ঘাম জমে অযোধ্যায়, মৃত মানুষটি পড়ে আছে অহল্যা পাথরে
যে সময় মা বিলীন হয়ে যাচ্ছে বাষ্প শাখায়

দীর্ঘ কবিতা

মায়ের মৃত্যুর মতো কোনো দীর্ঘ কবিতা নেই
কবিতার অক্ষর ধোঁয়ার মতো , পেঁচানো অথবা জটিল । কোন সমাস নেই। দ্বন্দ্ব নেই ।
প্রতিটি শব্দ’ই ভগ্নাংশ রঙের
দুহাতে ছিঁড়ে ফেলতে চাইছি সকল বন্ধন
আমার সকল রক্তকণায় গজিয়ে ওঠে আকাশমনি ফুল , যে কেবল নিরাময় জানে
ক্লোরোফরম আমাকে অদ্ভুত কালো গহ্বরের ভেতর ঘুম পাড়িয়ে রাখে
আমি এক ঈশ্বরের জন্য অপেক্ষা করি

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here