কোচবিহারের সাতমাইলে শুরু হলো হাইটেক পদ্ধতিতে আলু বীজের চাষ।

0
202

মনিরুল হক, কোচবিহার: কোচবিহারের সাতমাইলে শুরু হল অত্যাধুনিক হাইটেক পদ্ধতিতে আলু বীজের চাষ। এই কর্মসূচি পশ্চিমবঙ্গ সরকারের কৃষি দপ্তরের রাষ্ট্রীয় কৃষি বিকাশ যোজনার মাধ্যমে কোচবিহার জেলায় সাতমাইল সতিশ ক্লাব ও পাঠাগার এবং কোচবিহার-২ ব্লকের থানেশ্বর বিবেকানন্দ ফার্মার প্রডিউসার অর্গানাইজেশন এবং পুন্ডিবাড়ি কৃষি রত্ন ফার্মার প্রডিউসার অর্গানাইজেশন এর মাধ্যমে শুরু হলো বঙ্গশ্রী আলুর বীজ উৎপাদন প্রকল্প।

এটি ভাইরাস মুক্ত হবে এবং জেলাগুলিতে আলুর মরসুমে ভালো সার্টিফাইড বীজের অভাব লক্ষ করা যায় তাই কৃষি দপ্তর কোচবিহার জেলায় সার্টিফাইড আলুর বীজ তৈরীর লক্ষ্যমাত্রা নিয়েছে। আগামী মরশুমে থেকে খুফরি হিমালিনি এবং সুখ্যাতি ভ্যারাইটির আলু বীজ পাওয়া যাবে।

কৃষি দপ্তরের আধিকারিক গোপাল মান বলেন, আমাদের রাজ্যে আলুর বীজের উতপাদনে স্বনির্ভর হতে এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

জেলা কৃষি সহ আধিকারিক (ট্রেনিং) রজত চ্যাটার্জী বলেন, এই বঙ্গশ্রী আলুর বীজ রাজ্যে কৃষি দপ্তর দ্বারা কোচবিহার জেলায় এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। কোচবিহার জেলায় তিনটি এফপিও এই কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করেছেন আশা করি এই প্রজেক্ট কোচবিহার জেলায় কৃষকের আশা পূরণ করবে।

সাতমাইল সতিশ ক্লাব ও পাঠাগারের কোঅর্ডিনেটর চিত্তরঞ্জন বলেন, আলুর বীজ উৎপাদন প্রকল্পে যে আলুর বীজ তৈরি হবে তা ভাইরাস মুক্ত হবে এবং সার্টিফাইড কৃষকের ঘরে ঘরে পৌঁছাবে।

সাতমাইল সতীশ ক্লাব ও পাঠাগারের সম্পাদক অমল রায় বলেন, এই আলুর বীজ শেড নেটের ভিতরে হবে এবং ভাইরাসমুক্ত আলুর বীজ উৎপাদন হবে এই প্রকল্প আগামী দিনে জেলার সমস্ত ব্লকে পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা রাজ্য সরকারের তরফ থেকে নেওয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here