২০২২ সালে বিভিন্ন জায়গায় ক্যারাটে প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়ার আগে প্রস্তুতি নিচ্ছে পরিনিধি শর্মা।

0
383

বীরভূম, সেখ ওলি মহম্মদঃ- আত্মরক্ষা, নিয়মানুবর্তিতা, সংযম, ধৈর্যবৃদ্ধি… একজন মানুষকে সব দিক থেকে এগিয়ে যেতে সাহায্য করে ক্যারাটে। বর্তমানে নিজেদের আত্মরক্ষার জন্য মহিলারাও এখন ক্যারাটে প্রশিক্ষণ নিচ্ছেন। উল্লেখ্য, বাঙালি পরিবারের ছোট সদস্যদের চিরকালই আঁকা, গান, নাচ, আবৃত্তি ইত্যাদি শেখানোর রেওয়াজ আছে। বর্তমান টেকনোলজির যুগেও সে ধারার ব্যত্যয় ঘটেনি। তাতে যোগ হয়েছে আরও পালক। তার মধ্যে একটি ক্যারাটে। বাবা-মায়েদের স্বাস্থ্য সচেতনতা ও পরিস্থিতির কারণে ইদানীং এই মার্শাল আর্টসের জনপ্রিয়তা বাড়ছে। মূলত শারীরিক ক্ষমতা বৃদ্ধি ও আত্মরক্ষার কৌশল শেখার জন্যই ক্যারাটে স্কুলে সন্তানকে ভর্তি করেন অনেক অভিভাবক। তাই মাত্র ৬ মাস ক্যারাটে প্রশিক্ষণ নিয়ে আগামীদিনে ক্যারাটে প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়ার জন্য আগে থেকে প্রস্তুতি নিচ্ছে বীরভূম জেলার দুবরাজপুর পৌরসভার ৪ নম্বর ওয়ার্ডের মাদৃক সংঘের বাসিন্দা ৮ বছর বয়সী পরিনিধি শর্মা। পরিনিধি দুবরাজপুরের ইউথ কর্ণারে সেনসাই অলক চ্যাটার্জির কাছে প্রশিক্ষণ নিচ্ছে। সহ-প্রশিক্ষক হিসেবে তাকে প্রশিক্ষণ দিচ্ছে সিদ্দিক মিয়া। তাই প্রতিদিনের মতো আজও এই তীব্র শীতকে উপেক্ষা করে পরিনিধি তাঁর সহ-প্রশিক্ষক সিদ্দিক মিয়ার সাথে দুবরাজপুরের মাদৃক সংঘের ময়দান থেকে বক্রেশ্বর ড্যাম পর্যন্ত আনুমানিক ৫ কিলোমিটার দৌড় করে। উল্লেখ করা যায়, কয়েক মাস আগে দুর্গাপুর কাইকুসিন ওপেন ফুল কন্ট্যাক্ট ক্যারাটে চ্যাম্পিয়নশিপ আয়োজিত আন্তঃজেলা Independence Day Cup ক্যারাটে প্রতিযোগিতার ৮-১০ বছর বয়সী গ্রুপে প্রথম স্থান অধিকার করেছিল। এবার ২০২২ সালে বিভিন্ন জায়গায় ক্যারাটে প্রতিযোগিতায় অংশ নেবে পরিনিধি শর্মা। তারই জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে পরিনিধি।