কর্মবিরতি পালন করছেন মালদা জেলার আরও সাতটি হাসপাতালের সাফাইকর্মীরা।

0
297

নিজস্ব সংবাদদাতা, মালদা ঃ-চার মাসের মজুরি মেলেনি। উপরন্তু পুরোনো কর্মীদের ছাঁটাই করে নতুনদের নিয়োগ করা হচ্ছে। এনিয়ে একাধিকবার ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দ্বারস্থ হয়েছেন বামনগোলা গ্রামীণ হাসপাতালের সাফাইকর্মীরা। কিন্তু কোনও কাজ হয়নি। তাই আজ ওই হাসপাতালের সামনে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু করেছেন তাঁরা। তাঁদের সমর্থনে কর্মবিরতি পালন করছেন জেলার আরও সাতটি হাসপাতালের সাফাইকর্মীরা। যদিও এনিয়ে জেলা স্বাস্থ্য দপ্তরের কোনও প্রতিক্রিয়া এখনও পর্যন্ত পাওয়া যায়নি।
বামনগোলা গ্রামীণ হাসপাতালে মোট ১০ জন অস্থায়ী সাফাইকর্মী এতদিন ধরে কাজ করছিলেন। সম্প্রতি স্বাস্থ্য দপ্তর এই নিয়োগের ক্ষেত্রে নতুন টেন্ডারের আবেদন করে। তাতে নতুন একটি ঠিকাদার সংস্থা সেই টেন্ডার পায়। সাফাইকর্মীদের অভিযোগ, নতুন ঠিকাদার সংস্থা বামনগোলা গ্রামীণ হাসপাতালের ১০ জন অস্থায়ী কর্মীকেই ছাঁটাই করে দিয়েছে। সেখানে তারা নতুন কর্মী নিয়োগ করবে বলে জানিয়েছে। এর প্রতিবাদে ও কাজে বহাল রাখার দাবিতে সেখানকার স্বাস্থ্যকর্মীরা বারবার ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন জানিয়েছেন। এনিয়ে গতকাল তাঁরা জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিকের সঙ্গেও দেখা করেন। তাঁদের অভিযোগ, সিএমওএইচ তাঁদের সঙ্গে কথা বলেননি। গোটা ঘটনার প্রতিবাদে আজ তাঁরা বামনগোলা গ্রামীণ হাসপাতালের সামনে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু করেছেন।
শুধু বামনগোলা গ্রামীণ হাসপাতাল নয়, একই কারণে আজ অস্থায়ী সাফাইকর্মীদের কর্মবিরতি পালিত হচ্ছে হরিশ্চন্দ্রপুর গ্রামীণ হাসপাতাল, ভালুকা গ্রামীণ হাসপাতাল, মশালদা বাজার স্বাস্থ্যকেন্দ্র, মানিকচক গ্রামীণ হাসপাতাল, মৌলপুর গ্রামীণ হাসপাতাল, মুচিয়া স্বাস্থ্যকেন্দ্র এবং নালাগোলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রেও।