গোপীবল্লভপুর দুই ব্লকের চরমুন্ডির সুবর্ণরেখা নদীতে আদিবাসী সমাজের ধর্মীয় রীতিনীতি মেনে চলছে দামোদর উৎসব।

0
489

নিজস্ব সংবাদদাতা,ঝাড়গ্রামঃ- আদিবাসী সমাজের ধর্মীয় রীতিনীতি মেনে রবিবার চলছে অস্থি বিসর্জন, পূর্বপুরুষদের উদ্দেশ্যে তর্পণ ও পূজার্চনা। যাকে আদিবাসী সমাজের পক্ষ থেকে বলা হয় দামোদর উৎসব। ঝাড়গ্রাম জেলার গোপীবল্লভপুর দুই ব্লকের অন্তর্গত বেলিয়াবেড়া থানার অধীন চরমুন্ডি এলাকায় সুবর্ণরেখা নদীতে অস্থি বিসর্জন ও পূর্বপুরুষদের উদ্দেশ্যে তর্পণ করার জন্য দামোদর উৎসবে বহু মানুষ সামিল হয়েছেন। করোনা পরিস্থিতির কথা চিন্তা করে বেলিয়াবেড়া থানার ওসি সুদীপ পালোধীর নেতৃত্বে মাইকিং করে চরমুন্ডি এলাকায় দামোদর উৎসবে আসা সর্বস্তরের মানুষকে করোনা নিয়ে সচেতন হওয়ার আবেদন জানানো হয় ।প্রত্যেককে মুখে মাস্ক ব্যাবহার করার নির্দেশ দেওয়া হয় ।সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলার আবেদন জানানো হয়। যাদের মুখে মাস্ক নেই তাদের হাতে মাস্ক তুলে দেন বেলিয়াবেড়া থানার ওসি সুদীপ পালোধী। সেই সঙ্গে জীবাণুনাশক কীটনাশক দিয়ে ওই এলাকায় স্প্রে করা হয় ।পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে আদিবাসী সমাজের সর্বস্তরের মানুষকে দামোদর উৎসবে শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রেখে সামাজিক দূরত্ব মেনে ওই অনুষ্ঠানে শামিল হওয়ার আবেদন জানানো হয়। আদিবাসী সমাজের রীতি-নীতি মেনে প্রতিবছরই আজকের দিনটিতে গোপীবল্লভপুর দুই ব্লকের চরমুন্ডি এলাকায় সুবর্ণরেখা নদীতে দামোদর উৎসব উপলক্ষে অস্থি বিসর্জন ,পূর্বপুরুষদের উদ্দেশ্যে তর্পণ ও পূজার আয়োজন করা হয়। শুধু ঝাড়গ্রাম জেলা নয় পার্শ্ববর্তী পশ্চিম মেদিনীপুর,বাঁকুড়া,পুরুলিয়া,বীরভূম, জেলার পাশাপাশি ঝাড়খন্ড ও উড়িষ্যার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আদিবাসী সমাজের মানুষেরা সামিল হয় দামোদর উৎসবে। তাই করোনা পরিস্থিতির জন্য সবাইকে করোনা নিয়ে সচেতন করেন বেলিয়াবেড়া থানার ওসি সুদীপ পালোধী ।তিনি তার সহ কর্মী পুলিশ কর্মীদের সঙ্গে নিয়ে পুরো এলাকার পরিস্থিতি খতিয়ে দেখেন এবং গোটা এলাকা টা কে স্যানি টাইজেসন করেন। রবিবার সকাল থেকেই আদিবাসী সমাজের মানুষজন দলে দলে ওই এলাকায় এসে দামোদর উৎসবে সামিল হয়। তাদের করোনা বিধি মানার জন্য পুলিশ প্রশাসন এর পক্ষ থেকে মাইকিং করে প্রচার করা হয়। যাতে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে তার জন্য পুলিশের পক্ষ থেকে ওই এলাকায় নজরদারি ছিল চোখে পড়ার মতো। একসঙ্গে বেশি মানুষ জাতে ভিড় না করে তার জন্য পুলিস প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়।তবে দামোদর উৎসব কে কেন্দ্র করে কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।