সমুদ্র সৈকত দীঘায় ঘোড়া দৌড় বন্ধের নির্দেশ দিল দিঘা-শঙ্করপুর উন্নয়ন পর্ষদ,আন্দোলনে নামার হুঁশিয়ারি ব্যবসায়ীদের।

0
278

নিজস্ব সংবাদদাতা, পূর্ব মেদিনীপুর:- পূর্ব মেদিনীপুর জেলার সমুদ্র সৈকত দিঘায় ফের ঘোড়া দৌড় বন্ধের নির্দেশ দিল দিঘা-শঙ্করপুর উন্নয়ন পর্ষদ। মূলত দূষণ এবং বালিয়াড়ির ক্ষয় প্রতিরোধে এমন কড়া মনোভাব প্রশাসনের। তবে তা মানতে নারাজ ঘোড়া ব্যবসায়ীরা। আন্দোলনে নামার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তাঁরা। দিঘার পর্যটনের সঙ্গে ঘোড়া দৌড়ের সম্পর্ক বহু পুরোনো। দিঘার সৈকতে ঘোড়ার ব্যবসা করে দিনযাপন শতাধিক পরিবারের। আগে লকডাউন বর্তমানে বিধি নিষেদের গেরোয় কার্যত থমকে সৈকতের জনজীবন। বেশ বিপাকে পড়েছেন ঘোড়া কারবারিরা। ঘোড়ার দানা জোগানোর পরিস্থিতিই নেই অনেকের। তাই আস্থাবল ছেড়ে বর্তমানে সমুদ্র শহরের ঘোড়াগুলি যেখানে সেখানে ঘুরে বেড়াচ্ছে। তার বিষ্ঠায় বাড়ছে দূষণ। খুরের আঘাতে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে সরকারি সম্পদ বালিয়াড়ি। দিন দিন বাড়ছে ক্ষতি। এই কারণেই ঘোড়া দৌড় বন্ধের বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে প্রশাসন। এই সম্বন্ধে এমনটাই জানিয়েছেন দিঘা-শঙ্করপুর উন্নয়ন পর্ষদের প্রশাসক মানস কুমার মন্ডলের, তিনি আরো জানান ঘোড়ার বিষ্ঠা এটা শরীরের মারাত্মক ক্ষতিকারক, সমুদ্র সৈকতে এইসব ঘোড়াগুলি ঘোরার ফলে তাদের ক্ষতিকারক বিষ্ঠা সমুদ্রের জলের সঙ্গে মিশে, সেই জল পর্যটকদের গায়ে লেগে ক্ষতির সম্ভাবনা লেগেই থাকে, তাছাড়াও সমুদ্রসৈকতে যেখানে পর্যটকরা ঘোরাঘুরি করে সেই রাস্তায় ঘোড়ার বিষ্ঠা পড়ে থাকে পর্যটকদের পায়ে লেগে ক্ষতিকারক হতে পারে পর্যটকদের, এইসব সমস্ত দিক মাথায় রেখে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে প্রশাসনের তরফ থেকে। তবে এমন নির্দেশ এই প্রথম না। একই কারণে আগে বারবার ঘোড়ার কারবারে লাগাম পরিয়েছে প্রশাসন। কিন্তু বিগত দিনে সেই লাগাম ছেড়েই ঘোড়া ছুটছে সৈকতে। আগেও আন্দোলনের মধ্য দিয়ে ঐতিহ্যের ঘড়দৌড় টিকিয়ে রাখতে সক্ষম হয়েছিলেন কারবারিরা। এবারও সেই পথে নামার প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছেন তাঁরা।