জয়প্রকাশ মজুমদারের মন্তব্যে মেদিনীপুর শহরে এসে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে মুখ খুললেন দিলীপ ঘোষ।

0
248

নিজস্ব সংবাদদাতা,পশ্চিম মেদিনীপুর:- জয়প্রকাশ মজুমদারের উত্তরে মেদিনীপুরে দিলীপ ঘোষের বক্তব্য, কোনো ফাটল নেই, পার্টিতে ব্যবস্থা আছে, যাকে জিজ্ঞেস করা হয়েছে, তিনি উত্তর দেবেন।
যারা মনে করছেন যে তাঁদের যোগ্য জায়গা দেওয়া হয়নি, তাই নিয়ে মানসিক দিক থেকে একটু অস্বস্তির মধ্যে আছেন, তো পার্টির মধ্যে আলোচনার মাধ্যমে সমাধান করার জায়গা আছে, সেখানে না বলে কেউ প্রেসে বলছেন, কেউ চিঠি লিখছেন, কেউ ফেসবুক করছে, এটা ডিসিপ্লিনের বাইরে। আর এটা করলে দল জিজ্ঞেস করবে, যেন কেন এটা করছেন। কেন্দ্র সরকার IAS, IPS দের কর্মপদ্ধতি নিয়ে যে ব্যবস্থা নিতে চলেছে, তা নিয়ে রাজ্য সরকারের প্রতিবাদ প্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষ বলেন,
রাজ্য সরকার কেন্দ্রের IAS, IPS কে নিজের সম্পত্তি মনে করে, যেমন কেন্দ্রের টাকাটা ওদের, কিন্তু দায়ভার নেই, মিটিংয়ে যান না। IAS, IPS রা কেন্দ্রের ক্যাডার, কেন্দ্র তাদেরকে নিজের কাছে ডাকতেই পারে, কিন্তু রাজ্য সরকার তাদেরকে ছাড়ে না, সেটা নিয়ে রাজনীতি হচ্ছে, এটার সমাধানের জন্য কেন্দ্র তার আইনকে সংশোধন করেছে। কেন্দ্র ও রাজ্যের কিছু BJP নেতা বাংলায় বিজেপীর উত্থান মেনে নিতে পারছেন না, তাই এতো রদবদল বলে জয়প্রকাশ মজুমদারের মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে দিলীপ ঘোষ বলেন, উনি কি বলেছেন, ওটা উনার বিষয়, বাকি যাঁরা দলের এই ব্যবস্থা দেখছেন, তারা দেখবেন। রাজ্যপালের ভুমিকা নিয়ে BJP বাদে সমস্ত দল নিন্দায় সরব হয়েছেন, এই প্রশ্নে দিলীপ ঘোষ জানান, CPM চিরদিন এটাই করতো, পশ্চিমবঙ্গকে ভারতবর্ষ থেকে আলাদা দেখানোর চেষ্টা করতো, আর খালি ভিক্ষা করতো টাকা টাকা নেই বলে। তৃণমূলও তাই করছে, ট্যাবলোটা তাদেরকে দিতে হবে, কিন্তু তারা কোনো দায় নেবেনা, মিটিংয়ে যাবে না। জেলাশাসকদের পাঠাবে না। এই যে কেন্দ্র রাজ্য সমন্বয়ের ব্যবস্থা হচ্ছে। যখনই এই ধরনের অধিকারের প্রশ্ন উঠে, তখন বলা হয় এখানে যুক্তরাষ্ট্র পরিকাঠামো নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। ট্যাবলো না নিলে। আর যখনই DM দের ডেকে পাঠানো হয়, তখন তাঁদের পাঠানো হয়না, মুখ্যমন্ত্রী নিজে যান না, অর্থমন্ত্রী যান না, মুখ্যসচিব যাননা, তখন যুক্তরাষ্ট্র কাঠামো তখন নষ্ট হয়না ? এই সেফারেশনের রাজনীতি আগেও ছিল, এখনও চলছে, সেটা বাংলার মানুষও মানবেনা দেশের মানুষও মানবেনা। কারো কোনো সমস্যা হলে কেন্দ্র সভাপতিকে চিঠি লিখতে পারেন, এ রাজ্যে কেন্দ্রীয় প্রতিনিধিদের সঙ্গে কথা বলতে পারেন, শুধু স্টেটমেন্ট দিয়ে কিছু হবে না।
হিরনের প্রশ্নে দিলীপ ঘোষ বলেন, অভিভাবক নেই তো পার্টি চলছে কি করে, BJP ভারতবর্ষের একমাত্র গণতান্ত্রিক পার্টি। এখানে গণতান্ত্রিক পদ্ধতি মেনে নির্বাচন হয়। সবার মতামত নিয়ে সব করা হয়। যাঁরা পার্টিকে না বোঝেন বা বোঝার চেষ্টা করেন না, তারা এই ব্যাপারে হতাশ হচ্ছেন। তদের পার্টিকে ভালো করে জানা উচিৎ বলে জানিয়েছেন দীলিপ ঘোষ। মঙ্গলবার পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা বিজেপি কার্যালয়ে জেলা নেতৃত্বদের নিয়ে বৈঠকে যোগ দিতে এসে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে এই সমস্ত মন্তব্য করলেন দিলীপ ঘোষ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here