বাংলা-বিহার সংযোগকারী বাংলা সড়ক যোজনার কংক্রিটের ঢালাই রাস্তা, সেই রাস্তা নিয়ে চরম সমস্যায় পড়েছে পথ যাত্রী থেকে শুরু করে যানবাহন চালকেরা।

0
242

নিজস্ব সংবাদদাতা, মালদাঃ- এলাকাবাসীদে দীর্ঘদিনের দাবি মেনে জনগণের সুবিধার্থে সার্বজনীন বেসরকারি সাপ্তাহিক হাটের জমির উপর দিয়ে তৈরি হয়েছে বাংলা-বিহার সংযোগকারী বাংলা সড়ক যোজনার কংক্রিটের ঢালাই রাস্তা।সেই রাস্তা নিয়ে চরম সমস্যায় পড়েছে পথ যাত্রী থেকে শুরু করে যানবাহন চালকেরা।

এলাকাবাসীদের অভিযোগ হরিশ্চন্দ্রপুর-১ নং ব্লকের কুশিদা গ্রাম পঞ্চায়েতের কুশিদা হাট কমিটি সার্বজনীন বেসরকারি সাপ্তাহিক হাটের জমিকে নিজেদের মালিকানা দাবি করে রাস্তা চওড়া করতে বাধা দেওয়ায় ঠিকাদার সংস্থা রাস্তা
সংকীর্ণ করতে বাধ্য হয়েছে।এতে যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে।অপরদিকে হাট কমিটির অভিযোগ রাস্তার ধারে হাট ও কালী মন্দিরের জমি জবর দখল করে বসে রয়েছে মুদির দোকানদারেরা।দোকানগুলো উঠে গেলেই রাস্তা চওড়া হয়ে যাবে বলে দাবি।

হাট কমিটির সম্পাদক সুদর্শন তরফদার জানান হাটের প্রবেশ পথে রাস্তার জায়গা দখল করে বসে আছে কয়েকটি দোকানদার।তার জন্যই রাস্তাটি সংকীর্ণ হয়ে গেছে।দোকানগুলি উঠে গেলেই রাস্তা তৈরীর জন্য ২ থেকে ৪ ফিট যতটুকু জায়গা লাগবে তা হাট কমিটি দিবে।অপরদিকে হাট ম্যানেজিং কমিটির সদস্য কমল কান্ত দাস জানান কুশিদা হাট টি ৬১ জন ব্যক্তির জমির মালিকানাতে গড়ে উঠেছে। তাদের সকলের নামে পর্চা রয়েছে এবং সপ্তাহে একদিন মঙ্গলবার হাট বসার অনুমতি রয়েছে।দোকানগুলোকে উঠানোর জন্য বিডিও,এসডিও ও ডিম অফিসে লিখিত আবেদন করেছিলেন।বিডিও আবেদনের ভিত্তিতে দুই পক্ষের মধ্যে মধ্যস্থতা করার জন্য আসলেও ওই পক্ষ মানতে রাজি হয়নি বলে অভিযোগ।

কুশিদা গ্রাম পঞ্চায়েতের তৃনমূল কংগ্রেসের অঞ্চল সভাপতি মহম্মদ নুর আজম জানান বাংলা সড়ক যোজনা কুশিদা বাজার থেকে মস্তান রোড পর্যন্ত ২১ কিলোমিটার রাস্তা আগে ১২ ফিট চওড়া ছিল তা নতুনভাবে টেন্ডার হয়ে ১৮ ফিট চওড়া হয়েছে।স্থানীয় বাসিন্দারা ১৮ ফিট রাস্তা চওড়া করার জন্য
নিজেদের পৈত্রিক সম্পত্তির ২ থেকে ৩ ফিট জায়গা দিলেও হাট কমিটি কোনো জায়গা ছাড়েনি বলে হাটের মধ্যে রাস্তাটি সংকীর্ণ হয়ে গেছে।এতে চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছে যানবাহন চালকেরা।